‘সবকিছু রাজনীতির উপর নির্ভর করে না, নীতিবোধ বলেও কিছু আছে’, ভিক্টোরিয়ার অনুষ্ঠানে কী নিয়ে ক্ষুব্ধ মিমি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত ২৩ জানুয়ারি দেশনায়ক নেতাজির জন্মজয়ন্তীর দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। আমন্ত্রণ জানিয়েও ইচ্ছাকৃত অপমান করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে বলে দাবি জানিয়েছেন তৃনমূলের দলনেত্রীসহ সমস্ত সদস্য।

অন্যদিকে সেই অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগানকে ঘিরে এক জট পাকিয়েছে ইতিমধ্যেই। এরই মধ্যে অনুষ্ঠানের সময় ভিক্টোরিয়ায় যত্রতত্র নোংরা ফেলা নিয়ে বিশেষ ভাবে সরব হয়েছেন বহু মানুষ। সেই সুরে সুর মিলিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন সাংসদ-অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

কিছুক্ষণ আগেই টুইট করে এক শ্রেণির মানুষের অসচেতনতার বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন মিমি। অভিনেত্রী লিখেছেন, “জাতীয় ঐতিহ্যবাহী এলাকায় অনুষ্ঠানের কর্মসূচি যখন রেখেছেন, তখন জায়গা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার দায় আপনাদেরই। এইটুকু দায়বদ্ধতা নেই আপনাদের মধ্যে! আমি যতদূর জানি ভিক্টোরিয়ায় খাবার নিয়ে ঢোকা নিষিদ্ধ। সেখানে গিয়েও আপনারা আইন অমান্য করবেন!”

এখানেই শেষ নয়। মিমি তার আগে আরও একটি টুইট করেছেন। যেখানে তিনি লিখেছেন, “সবসময় সবকিছু দল এবং রাজনীতির উপর নির্ভর করে না। এটা একটা নীতিবোধ। এই ধরনের কাজ চাইলে এড়িয়ে যাওয়াই যেত!” জানা যাচ্ছে, অনুষ্ঠানের পরে প্যাকেট কুড়িয়ে পরিষ্কার করার কাজটাও কেউ করেননি। ইতিমধ্যেই মিমি টুইটারেই বহু পরিবেশ-প্রেমী মানুষের সর্মথন পেয়েছেন।

এটিই প্রথমবার নয়। এর আগেও উত্তরবঙ্গে বেড়াতে গিয়ে বন-জঙ্গলে প্লাস্টিকের প্যাকেট, বোতল, খাবারের থালা যত্রতত্র ফেলে নোংরা করাকে তীব্র নিন্দা করেছিলেন মিমি। সেবারও একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে নিজের কথা ব্যক্ত করায়, প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন বহু মানুষের।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More