তোমায় মিস করছি, ফিরে এস বাবা! কাশ্মীরে এনকাউন্টারস্থলে জঙ্গিকে আবদার ৪ বছরের ছেলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাতাসে বারুদের গন্ধ। গুলির শব্দে খানখান হয় রাতের নিস্তব্ধতা। এটাই জম্মু ও কাশ্মীরের চেনা ছবি। সেখানে এনকাউন্টার চলাকালে সন্ত্রাসবাদী বাবার উদ্দেশে চার বছরের বাচ্চার ঘরে ফিরে আসার বুকফাটা আর্তির একটি ভিডিও ভাইরাল হল। ২৫ বছরের আকিব আহমেদ মালিক নামে মাত্র তিন মাস আগে জঙ্গি সংগঠনে যোগদানকারী যুবকের অবশ্য ঘরে ফেলা হয়নি। সোপিয়ানের এনকাউন্টারস্থলে নিরাপত্তাবাহিনীর ব্যারিকেড করে ঘিরে ফেলা বাড়ি থেকে তাকে বেরতে দেয়নি বাকি সন্ত্রাসবাদীরা। গুলিযুদ্ধে সে মরেছে, বাকি তিনজনও খতম হয়েছে।

এনকাউন্টারের মধ্যেই আকিবের মা, তার শিশুপুত্রকে ঘটনাস্থলে নিয়ে আসেন নিরাপত্তাবাহিনীর জওয়ানরা। যদি তাদের আবেদনে মন বদলে সে বন্দুক ছেড়ে মূলস্রোতে ফিরতে ঘরে ফেরে। ভিডিওতে বাচ্চাটিকে বলতে শোনা যাচ্ছে, বেরিয়ে এস। ওরা তোমার ক্ষতি করবে না। বেরিয়ে এস। তোমায় মিস করছি।  সম্ভবত, নিরাপত্তাবাহিনী সূত্রেই ভিডিওটি মিলেছে। তাতে আকিবের স্ত্রীকেও মাঝরাতের অপারেশন চলাকালেও তার প্রতি আবেগমাখা আবেদনে বলতে শোনা গিয়েছে, বেরিয়ে এসে আত্মসমর্পণ করো। বেরিয়ে আসতে না চাইলে আমায় গুলি   করো। আমাদের দুই সন্তানই আমার সঙ্গে এসেছে। বেরিয়ে এসে ধরা দাও।

সেনাবাহিনী জানিয়ছে, আকিব বেরিয়ে এসে ধরা দিতে চাইলেও তার সঙ্গে আটকে পড়া সন্ত্রাসবাদীরা তাকে ছাড়েনি। সিনিয়র সেনা অফিসার মেজর জেনারেল রশিম বালি বলেছেন, প্রথমে ওর স্ত্রী আত্মসমর্পণ করতে বলে। আমরা তারপর ওর চার বছরের ছেলেকে দিয়ে বলাই, হয়তো ছেলের কথায় মন গলে যাবে, এই আশায়। কিন্তু ও বেরিয়ে আসতে চাইলেও বাকিরা বাধা দেয়। বেরিয়ে এলে আমরা ওকে বাঁচাতে পারতাম।

ব্যাঙ্ককর্মী আকিব গত ২০ ডিসেম্বর আচমকা উধাও হয়ে যায়, সন্ত্রাসবাদীদের দলে ভিড়ে যায় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। সেনাবাহিনী জানিয়েছে, সংঘর্ষস্থল থেকে একটি একে রাইফেল, তিনটি পিস্তল উদ্ধার  হয়েছে। অভিযান চলাকালে দুটি আবাসিক ভবন ধ্বংস হয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে সন্ত্রাসবাদীরা যে বাড়িতে ঢুকে গা ঢাকা দিচ্ছে, সেই বাড়িকে গোলাগুলিতে গুঁড়িয়ে দিয়ে বড় সাফল্য পেয়েছে সেনাবাহিনী। গত সপ্তাহেও সোপিয়ানে এনকাউন্টার চলাকালে সাতটি বাড়ি গুঁড়িয়ে দেয় নিরাপত্তাবাহিনী, দুজন সন্ত্রাসবাদী খতম হয়। চলতি বছরে এপর্যন্ত মোট ১৯ জন জঙ্গি খতম হয়েছে বলে জানিয়ছে পুলিশ। তবে সন্ত্রাসবাদীদের আত্মসমর্পণের সুযোগ দেওয়াটা প্রশাসনের কৌশলের অঙ্গ রয়েছে।

 

 

 

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More