করোনা ভয়ে কেউ এল না! বিজেপির অনুপের দেহ সৎকার করলেন তৃণমূলের বুদুন শেখরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোট, রাজনৈতিক চাপানউতোর সঙ্গে করোনার বাড়বাড়ন্ত- গত কয়েক মাসে বড্ড কঠিন সময় দেখেছে বাংলা। ভোটের ফল ঘোষণার পরেও থামেনি হিংসা। অশান্তিতে জর্জরিত এই বাংলাতেই কিন্তু এবার তৈরি হল নতুন নজির।

হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে গতকালই মারা যান অনুপ ব্যানার্জী।তিনি কেতুগ্রামের চাকটায় বিজেপির বুথ সভাপতি ছিলেন। করোনায় মৃত্যু হয়েছে মনে করে তাঁর সৎকারে কেউ এগিয়ে আসেননি। ২৪ ঘণ্টা বাড়িতেই পড়ে থাকে তাঁর দেহ। অবশেষে দুঃসময়ে রাজনৈতিক বিভেদ ভুলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন ওই এলাকার তৃণমূল কর্মীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বিকেল ৩টে নাগাদ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে হঠাৎই হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে মৃত্যু হয় অনুপ বাবুর। আশেপাশের লোকের ধারনা হয় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তিনি। ফলে মৃতদেহ সৎকারের জন্য কেউ সাহায্যে এগিয়ে আসেন না। প্রতিবেশী তো দূরের কথা, আত্মীয় স্বজন, বন্ধু, এমনকি মুখ ফিরিয়ে থাকেন তাঁর দলের সহকর্মীরাও। বাড়ির ভিতরে অনুপ বাবুর অসহায় স্ত্রী ও একমাত্র মেয়ে মৃতদেহ আগলে একা পড়ে থাকেন ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

ঘটনার খবর পেয়ে এরপর আনখোনা পঞ্চায়েতের তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা বুদুন শেখের নেতৃত্বে এগিয়ে আসেন। কেতুগ্রামের উদ্ধারনপুর শ্মশানে মৃতদেহ সৎকারের ব্যবস্থা করেন তাঁরা। রাজনৈতিক মতাদর্শই শুধু নয়, বিপদ কালে ধর্মীয় বিভেদও মনে রাখেননি ওই তৃণমূল কর্মীরা।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সহ সভাপতি অনিল দত্ত জানান, কোভিডের ভয়ে অনেকেই মৃতদেহের কাছে আসতে চাইছে না।দাহ করা হয়েছে কি না খোঁজ নেবো।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More