কেরলে কলেজ ক্যাম্পাসে সহপাঠিনীকে গলায় ব্লেড, পুলিশ আসা পর্যন্ত বসে রইল অভিযুক্ত!

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কেরলের (kerala) কোট্টায়মের পালার সেন্ট টমাস কলেজ চত্বরে (college campus) সহপাঠিনীকে (classmate) গলায় ব্লেড (blade) চালিয়ে খুন (murder) করল ছাত্র (student)। পুলিশ জানিয়েছে, অভিষেক বাইজু নামে অভিযুক্ত পড়ুয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে ২২  বছরের ছাত্রী নিথিনামল কলেজে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা দিয়ে বাইরে বেরতেই তাঁর ওপর চড়াও হয় অভিষেক। দুজনে একই ব্যাচের পড়ুয়া। ১৯৫০ সালে স্থাপিত সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত কলেজটি চালায় সাইরো-মালাবার চার্চ।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কলেজের নিরাপত্তারক্ষী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, কলেজ চত্বরে গাড়ি আসা যাওয়ার রাস্তায় তিনি ওদের দুজনকে তর্কাতর্কি করতে দেখেন। তারপর আচমকাই দেখি মেয়েটিকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দিল ছেলেটি। তার গলা টিপে ধরে সে। ব্লেড দেখতে পাইনি, তবে কয়েক সেকেন্ড পরই দেখি, গলগল করে রক্ত বেরচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে প্রিন্সিপালকে ফোন করে হামলার ঘটনা জানাই। হামলাকারী হাত থেকে  রক্ত মুছে কিছুটা দূরে গিয়ে বসে পড়ে, দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেনি। পুলিশ আসা পর্যন্ত ওখানেই বসে ছিল সে। হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্রটি পেপার কাটার জাতীয় কিছু বলে জানান তিনি।

রক্তাক্ত নিথিনামলকে সহপাঠী, স্থানীয় লোকজনই কাছের হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু অনেকটা রক্ত বেরিয়ে যাওয়ায় হাসপাতালেই সে মারা যায়। অভিযুক্তকে স্থানীয় লোকজনই পুলিশের হাতে তুলে দেন।

নিথিনামল, অভিষেক পৃথক জেলারা বাসিন্দা। দুজনেই কলেজের ফুড প্রসেসিং টেকনোলজির ডিগ্রি কোর্সের চূড়ান্ত বর্ষের পড়ুয়া। মেয়েটি ছেলেটির প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় এই হামলা, দাবি  করছে স্থানীয় মিডিয়া। তবে পুলিশ জানিয়েছে, হত্যার মোটিভ এখনও স্পষ্ট নয়। আমরা ওকে হেফাজতে নিয়েছি। ওর মানসিক স্থিতিশীলতা নেই বলে মনে হচ্ছে। ওকে জেরা করে জানার চেষ্টা হবে, কেন এমন করল।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.