জঙ্গি নিশানায় অ-কাশ্মীরীরা, ৩৭০ প্রত্যাহারের পর শনিবার প্রথম কাশ্মীরে অমিত শাহ

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক মাসে একের পর এক সন্ত্রাসবাদী হামলায় (terror) ১১ জনের মৃত্যুতে ভয়, আতঙ্কের (fear) আবহাওয়া জম্মু ও কাশ্মীরে (jammu kashmir)। পন্ডিত সম্প্রদায়ের (pandit community)  পাশাপাশি জঙ্গি নিশানায় পেটের টানে, রুটি-রুজির ধান্দায় ভিন রাজ্য থেকে উপত্যকায় যাওয়া অ-কাশ্মীরীরাও (non-kashmiri)। এই পরিস্থিতিতে শনিবার তিনদিনের জম্মু কাশ্মীর সফরে যাচ্ছেন অমিত শাহ (amit shsh)।  নির্দিষ্ট টার্গেট বেঁধে খুনের সংস্কৃতির মধ্যেই সেখানে নিরাপত্তা সংক্রান্ত পর্যালোচনা বৈঠকে পৌরহিত্য করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,  পঞ্চায়েত সদস্য ও রাজনৈতিক কর্মীদের সভায়ও হাজির থাকবেন।

২০১৯ সালে শাহের উদ্যোগেই জম্মু কাশ্মীরে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ(article 370) প্রত্যাহার করে সাবেক রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে মোদী সরকার। জম্মু ও কাশ্মীর পরিণত হয় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে। স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে এমন বড় ঘটনার পর এটাই সেখানে শাহের প্রথম সফর হতে চলেছে। শেষ তিনি সেখানে গিয়েছিলেন ২০১৯ এর জুনে। তার  কয়েক মাস বাদেই ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া হয়।

স্থানীয় বিজেপি নেতা সুনীল শর্মা জানিয়েছেন, তাঁদের জানানো হয়েছে, শাহ শ্রীনগর পৌঁছে সোজা জম্মু যাবেন, নয়াদিল্লি ফেরার আগে কাশ্মীরে পা রাখবেন।  জম্মুতে সভা-শোভাযাত্রা করবেন তিনি।

শাহের সফরকে ঘিরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার আয়োজন করা হয়েছে। ৫ পরিযায়ী শ্রমিক গত কয়েকদিনে  জঙ্গি সন্ত্রাসের বলি হওয়ায় আতঙ্কের স্রোত বইছে ভিন রাজ্যের  লোকজনের মনে। পরিযায়ী শ্রমিকরা উপত্যকা ছাড়তে শুরু করেছেন।  সাম্প্রতিক ১০টি এনকাউন্টারে ১৭ সন্ত্রাসবাদী খতম হয়েছে বলে জানিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ।  এক সেনা জওয়ানও নিহত হয়েছেন।

সূত্রের খবর,  কেন্দ্রের  মন্ত্রীরা   দেশের নানা প্রান্তে জনসংযোগের যে কর্মসূচি নিয়েছেন, শাহের এই সফর তারই অঙ্গ, যেখানে উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলির অগ্রগতি খতিয়ে দেখবেন তিনি।

ইতিমধ্যে জম্মু কাশ্মীরে জনসংযোগ কর্মসূচিতে ঘুরে গিয়েছেন নরেন্দ্র সিং তোমর, জি কিষাণ রেড্ডি, জন বার্লার মতো বেশ কিছু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। গত মাসে শাহ জম্মু কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা ও পদস্থ আমলাদের সঙ্গে বৈঠকে সেখানকার উন্নয়নমূলক কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করেন।

গত জুনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, মেহবুবা মুফতি  সহ জম্মু ও কাশ্মীরের মূল ধারার নেতাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। বৈঠকে ফারুক, মেহবুবারা পরিষ্কার দাবি করেন, জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দিন।

You might also like
1 Comment
Leave A Reply

Your email address will not be published.