সেই উত্তরপ্রদেশ, ‘শারীরিক সম্পর্কে নারাজ’ স্ত্রীকে গুলি করে খুন, ৩টি বাচ্চাকে খালে, গ্রেফতার

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্বামী চাইলেই শারীরিক মিলনে লিপ্ত হতে কি বাধ্য স্ত্রী?  আর না রাজি হলে একেবারে গুলি করে শেষ! উত্তরপ্রদেশের গত মঙ্গলবারের ঘটনাটি এই প্রশ্নই তুলে দিল। মুজফফরনগরের বাসেদি গ্রামের ৩৭ বছর বয়সি এক ব্যক্তি গত ১৫ দিন ধরে শারীরিক সম্পর্ক প্রত্যাখ্যান করায় স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করেছে, তিন শিশুসন্তানকে খালে ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে বলেও অভিযোগ।

পাপ্পু কুমার নামে অভিযুক্ত ৩৬ বছর বয়সি স্ত্রী ডলিকে খুন করে ৫ বছরের সোনিয়া, ৩ বছরের বংশ, ১৫ মাসের হর্ষিতাকে খালে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে গা ঢাকা দেয়। গ্রামবাসীরাই পুরকাজি থানার  পুলিশকে খবর দেয়। তিনটি শিশুসন্তানকে খাল থেকে এখনও উদ্ধার করা যায়নি বলে জানিয়েছেন থানার ইনচার্জ দেশরাজ সিং। পাপ্পু গ্রেফতার হয়েছে। সে স্ত্রীকে হত্যা, তিনটি বাচ্চাকে জলে ফেলে দেওয়ার অপরাধ স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় পুলিশ অফিসারকে উদ্ধৃত  করে সংবাদমাধ্যম বলেছে, অভিযুক্তের দাবি, স্ত্রী গত ১৫দিন ধরে ঘনিষ্ঠ হতে চাইছিল না। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীকে হুমকি দেয়, আবার যদি সে আপত্তি করে, তবে তাকে মেরে ফেলবে। মঙ্গলবার স্ত্রী যথারীতি তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে গররাজি হলে সে  তার মাথা লক্ষ্য করে গুলি চালায়।  কিন্তু স্ত্রীকে মেরে ফেলার পর তার মাথায় আসে, বাচ্চাগুলোর কী হবে! তাই ওদেরও মেরে ফেলতে চেয়ে জলে ফেলে দেয় সে। সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ মাধ্যমের খবর, নিহত মহিলার সঙ্গে ১০ বছর আগে বিয়ে  হয়েছিল পাপ্পুর দাদার সঙ্গে। দাদা মারা গেলে তাকে বিয়ে করে পাপ্পু।

ঘটনাচক্রে উত্তরপ্রদেশে এমন নিষ্ঠুরতা, নারী নিগ্রহ নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। ধর্ষণ, শ্লীলতাহানি সহ নারী নির্যাতনে দেশের শীর্ষস্থানে থাকা রাজ্যগুলির মতো জায়গা  করে নিয়েছে যোগী আদিত্যনাথ শাসিত রাজ্যটি।

এদিকে আরেকটি মর্মান্তিক ঘটনায় স্ত্রীর কাছে মদ খাওয়ার টাকা চেয়ে না মেলায় ঝগড়াঝাটি করে এক বছরের সন্তানকে বোল্ডারে আছাড়  মেরে খুন করেছে পেশায় দিনমজুর এক ব্যক্তি। মহারাষ্ট্রের নাগপুরের ওয়াকোডি গ্রামের ঘটনা।

 

 

 

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.