যুবকদের ভুল পথে যাওয়া রুখতে হবে, পারবেন মহিলা পুলিশরা, কাশ্মীর প্রসঙ্গে বললেন মোদী

গত ৪২ সপ্তাহ ধরে ১৩১জন আইপিএস প্রবেশনারের প্রশিক্ষণ চলে হায়দরাবাদে। এর মধ্যে ২৮ জন মহিলা। এদিন ছিল প্রশিক্ষণের শেষ দিন। সেই উপলক্ষে এদিন হায়দরাবাদের সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল ন্যাশনাল পুলিশ অ্যাকাডেমিতে হওয়া 'দীক্ষান্ত প্যারেড' অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কাশ্মীর উপত্যকায় উত্তেজনা কমাতে সেখানকার যুবকদের ভুল পথে যাওয়া রুখতে হবে। নিয়ে আসতে হবে সঠিক পথে। আর এই কাজটা করতে পারবেন মহিলা পুলিশরাই। শুক্রবার এমনই মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিন আইপিএস প্রবেশনারদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী এমন কথা বলেন এক ভার্চুয়াল সভায়।

আরও পড়ুন

সুশান্তের মৃত্যুতে মাদক যোগ, রিয়ার বাড়িতে নারকোটিক্স ব্যুরোর সার্চ টিম

গত ৪২ সপ্তাহ ধরে ১৩১জন আইপিএস প্রবেশনারের প্রশিক্ষণ চলে হায়দরাবাদে। এর মধ্যে ২৮ জন মহিলা। এদিন ছিল প্রশিক্ষণের শেষ দিন। সেই উপলক্ষে এদিন হায়দরাবাদের সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল ন্যাশনাল পুলিশ অ্যাকাডেমিতে হওয়া ‘দীক্ষান্ত প্যারেড’ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী। ভার্চুয়াল মাধ্যমে হওয়া সেই সভায় মোদী জম্মু-কাশ্মীরের জঙ্গি তৎপরতা কমানোর প্রসঙ্গে বলেন, “অল্প বয়স থেকেই যুবদের ভুল পথে যাওয়া থেকে আটকাতে হবে। মহিলা পুলিশরাই এই কাজটা করতে পারবেন সেখানকার মহিলাদের সঙ্গে মিশে।”

এদিনের বক্তৃতায় কোভিড-১৯ মহামারীর সময়ে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশংসা করেন নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, “খাকি পোশাকের মানবিক মুখ মানুষের মনে থাকবে ভাল কাজের জন্য বিশেষ করে মহামারীর সময়ে।” একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশের পোশাকের ক্ষমতার থেকে বড় করে দেখা উচিত এই উর্দির গর্বকে। তিনি পুলিশ কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, “আপনাদের পোশাকের প্রতি সম্মান যেন কখনও চলে না যায়।”

পুলিশেরা কী ভাবে কাজের চাপে তৈরি হওয়া স্ট্রেস কমাতে পারেন তার পরামর্শও দেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, মানসিক চাপ কমানোর জন্য নিয়মিত কাছের মানুষের সঙ্গে কথা বলতে হবে। ছুটির দিনে চলে যেতে হবে কোনও শিক্ষকস্থানীয় এমন কারও কাছে যিনি মূল্যবোধের পরামর্শ দেবেন। এর পাশাপাশি যোগাভ্যাস এবং প্রাণায়ামের পরামর্শও দেন। তিনি বলেন, “যাঁরা চাপের কাজ করেন তাঁদের জন্য যোগাভ্যাস এবং প্রাণায়াম খুব জরুরি। কোনও কাজ যদি হৃদয় থেকে করেন তবে তার লাভ অবশ্যই মিলবে। যতই কাজের চাপ থাকুক না কেন কোনও ভাবেই স্ট্রেস অনুভব করবেন না।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More