নববর্ষ সংযতভাবে পালনের পরামর্শ কেন্দ্র, রাজ্যের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সম্প্রতি ভারতে খোঁজ মিলেছে ব্রিটেনের স্ট্রেনের। পশ্চিমবঙ্গ- সহ একাধিক রাজ্যে এই ধরনের ভাইরাসে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়ার পর উদ্বেগে কেন্দ্র। সামনেই বর্ষবরণ। এই অবস্থায় করোনার এই নতুন স্ট্রেন যাতে বেশি ছড়াতে না পারে, তার জন্য রাজ্যগুলিকে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্র। প্রয়োজনে নাইট কার্ফুর মতো কড়া পদক্ষেপ নেওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে মানুষকে সংযতভাবে নববর্ষ পালনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। একই পরামর্শ দেওয়া হল রাজ্যের তরফেও। সবাইকে শান্ত ও সংযতভাবে নববর্ষ পালনের পরামর্শ দিলেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে আলাপন বলেন, আসন্ন বর্ষশেষের উদযাপন নিয়ে রাজ্য সরকার আবেদন জানাচ্ছে শান্তভাবে সবাই উৎসব পালন করুন। কোথাও জটলা করবেন না। কারণ করোনার নতুন স্ট্রেনের জন্য একটা বিশেষ উদ্বেগ রয়েছে। তাই সবাইকে সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দেন তিনি।

আলাপন জানান, “মাননীয় হাইকোর্ট এই বিষয়ে আমাদের নির্দেশ দিয়েছে। কেন্দ্রের তরফেও চিঠি পাঠানো হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠক করেছেন। সেই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ইকোপার্ক, পার্কস্ট্রিট থেকে শুরু করে কলকাতার যেসব জায়গায় ভিড় হয়, সেখানে যে পুলিশ বুথগুলি থাকে সেগুলি সহয়তা কেন্দ্রের কাজ করবে। মাস্ক ছাড়া জনবহুল জায়গায় আসা যাবে না। কারও মাস্ক না থাকলে পুলিশকে বলব এই সহায়তা কেন্দ্রগুলি থেকে মাস্ক দেওয়ার। সেইসঙ্গে যতটা পারব স্যানিটাইজার রাখারও সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। তবে সেটা বহুল পরিমাণে হবে না।”

রাজ্যবাসীর কাছে মুখ্যসচিব আবেদন করেন, “সবাইকে বলছি মাস্ক পড়বেন, জটলা করবেন না। শান্ত ভাবে, অনুসাশিত ভাবে, সংযত ভাবে নববর্ষ উদযাপন করবেন।”

ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফে রাজ্যগুলিকে যে চিঠি পাঠানো হয়েছে তাতে বলা হয়েছে, “গত সাড়ে তিন মাস ধরে দেশে কোভিড ১৯ অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা কমছে। কিন্তু ইউরোপ ও আমেরিকায় নতুন করে কোভিড ১৯ কেস বাড়তে থাকায় এখনও নির্দিষ্ট সুরক্ষা ব্যবস্থা ও পর্যবেক্ষণ আমাদের দেশে রাখতে হবে। আপনারা সবাই জানেন শীতকালে অনেক উৎসব হয়। সেইসঙ্গে সামনেই নববর্ষ রয়েছে। এই অবস্থায় যেখানে সংক্রমণ খুব বেশি ছড়াতে পারে সেইসব জায়গায় কড়াকড়ি করতে হবে। দরকার পড়লে নাইট কার্ফুর সিদ্ধান্তও নিতে পারে রাজ্যগুলি।”

যদিও নাইট কার্ফুর প্রসঙ্গে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “কেন্দ্র অ্যাডভাইজ করেছে রাজ্যগুলিকে পরিস্থিতি বুঝে ব্যবস্থা নিতে। কেন্দ্রীয় সরকার বলেছে স্থানীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নিতে। আমাদের রাজ্যে এমন পরিস্থিতি হয়নি যে নাইট কার্ফু করতে হবে। এখানে তো কয়েকটা জায়গায় উদযাপন হয়। তার জন্য সব রকম ব্যবস্থা করা হচ্ছে।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More