‘তাণ্ডব’-এ শিবকে অপমান! অভিযোগ ঘিরে বিতর্ক তুঙ্গে, আমাজন প্রাইমের জবাব চাইল কেন্দ্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রিলিজের পর থেকেই আমাজন প্রাইমেরর ওয়েব সিরিজ ‘তাণ্ডব’ কে ঘিরে রীতিমতো তাণ্ডবই শুরু হয়ে গেছে। সেফ আলি খান ও ডিম্পল কাপাডিয়া অভিনীত আলি আব্বাজ জাফরের এই ওয়েব সিরিজে বারে বারেই হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাগেবে আঘাত করা হয়েছে এমন অভিযোগই তুলেছেন মহারাষ্ট্রের ঘাটকোপারের বিধায়ক রাম কদম। হিন্দু দেবতা শিবকে অপমান করা হয়েছে বলে গুরুতর অভিযোগ এনেছিন রাম কদম। এফআইআরও দায়ের করেছেন বিধায়ক। তারপরেই কার্যত বিতর্ক তুঙ্গে উঠেছে। আমাজন প্রাইমকে এর জবাব দিতে বলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, ঘাটকোপার থানায় অভিনেতা, প্রযোজক, পরিচালকের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছেন বিধায়ক রাম কদম। তাঁর অভিযোগ, হিন্দু দেবতাদের অবমাননা করা হয়েছে এই ওয়েব সিরিজে। হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত এসেছে। টুইট করে রাম কদম বলেছেন, এখনকার বেশিরভাগ ওয়েবসিরিজেই হিন্দু দেবদেবীদের নিয়ে উপহাস করা হয়। তাণ্ডব তাদেরই মধ্যে একটা। সেফ আলি খানও এখানে অভিনয় করেছেন। এভাবে হিন্দুদের আদর্শে আঘাত করা উচিত হয়নি।

তাণ্ডব ওয়েবসিরিজ বন্ধ করার জন্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরের কাছে চিঠি লিখেছেন বিজেপি সাংসদ মনোজ কোটাক। তাঁর বক্তব্য, এই ধরনের ওয়েবসিরিজগুলিতে উদ্যাম যৌনতা দেখানো হয়। হিংসা, মাদক, ঘৃণা এবং কিছু সময় তো হিন্দু ধর্মকেও অবমাননা করা হয়। শুধু তাণ্ডব নয়, কার্যত গোটা বলিউডকেই এই ধরনের সিনেমা বা সিরিজ তৈরি থেকে বিরত থাকার হুমকি দিয়েছেন তিনি।

কী দেখানো হয়েছে তাণ্ডব ওয়েব সিরিজে? সিরিজের প্রথম পর্বটি নিয়েই সমস্যা ও বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ওই পর্বে দেখানো হয়েছে, অভিনেতা মহম্মদ জিশান আয়ুব বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াতে গিয়ে ভগবান শিবের প্রসঙ্গ তোলেন। তিনি বলেন, তোমরা কার থেকে স্বাধীনতা চাও? এরপর ওই দৃশ্যে দেখানো হয় পড়ুয়ারা স্টেজে উঠে আসার পরই  ‘নারায়ণ নারায়ণ’ ধ্বনি ওঠে। প্রথম পর্বের এই অংশটি নিয়েই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। দাবি করা হয়েছে, ভগবান শিবকে খর্ব করে দেখানো হয়েছে এখানে।

তাণ্ডব ওয়েব সিরিজ নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছেন বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র। টুইট করে তিনি বলেছেন, “হিন্দু ধর্ম ও দেবদেবীদের ছোট করে দেখানো হচ্চে ওয়েব সিরিজগুলিতে। জঙ্গিদের হিরো বলা হচ্ছে, আমাদের বাহিনীকে নিয়ে উপহাস করা হচ্ছে। এর পরেও এই ধরনের ওয়েব সিরিজি রমরম করে চলছে।”

আমাজন প্রাইমের কোনও বক্তব্য এখনও পাওয়া যায়নি। তবে দ্রুত এই ওয়েব প্ল্যাটফর্মের জবাব চেয়ে পাঠিয়েছে কেন্দ্র।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More