কলকাতায় কালীপুজো উদ্বোধন করেছিলেন সাকিব! বাংলাদেশের মৌলবাদীদের হুমকির মুখে চাইলেন ক্ষমা

সোমবার বিকেলে মীরপুর স্টেডিয়ামে অনুশীলন করার সময়ে বেশ কয়েকজন যুবক সাকিবকে কটুক্তি করেন। তারপর নিজের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও পোস্ট করেন সাকিব।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলাদেশের ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান কলকাতার একটি কালীপুজো উদ্বোধনে উপস্থিত হয়েছিলেন। তা নিয়ে সংখ্যালঘু মৌলবাদীদের তীব্র আক্রমণের মুখে পড়তে হল ক্রিকেটারকে। চাপে পড়ে শেষমেশ সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাইলেন সাকিব।

সিলেটের মহসিন তালুকদার নামের এক যুবক ফেসবুকে ভিডিও ছড়িয়ে বলেন, সাকিব মুসলমান হয়ে কালীপুজো উদ্বোধন করে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছেন। এখানেই থামেননি ওই যুবক। তিনি যখন এই ভিডিও তোলেন দেখা যায় তাঁর হাতে রয়েছে একটি ধারালো অস্ত্র। ইসলাম অবমাননার অভিযোগ তুলে সরাসরি খুনের হুমকি দেন সাকিবের উদ্দেশে।

এরপর আসরে নামে পুলিশ। পুলিশি তৎপরতা শুরু হতেই নরম হন ওই যুবক। তিনি তারপর আরও একটি ভিডিও পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতে তিনি বলেন, “আমি আবেগের বশবর্তী হয়ে এই কাজ করেছি। কিন্তু সাকিব ভাইয়ের উচিত ক্ষমা চাওয়া।” যদিও পরে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

গোটা ঘটনা নিয়ে তোলপাড় পড়ে যায় বাংলাদেশে। সোমবার বিকেলে মীরপুর স্টেডিয়ামে অনুশীলন করার সময়ে বেশ কয়েকজন যুবক সাকিবকে কটুক্তি করেন। তারপর নিজের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও পোস্ট করেন সাকিব। তিনি বলেন, “আমি গর্বিত মুসলমান। ধর্মকে আঘাত করার কোনও উদ্দেশ্য আমার নেই। আমি উদ্বোধনও করিনি। আমি ওই প্যান্ডেলে যাওয়ার আগেই উদ্বোধন হয়ে গেছিল। তবে আমার যাওয়া উচিত হয়নি। এরপর থেকে আমি সতর্ক থাকব। আশা করব আমায় ভুল বুঝবেন না। ক্ষমা করবেন।”
বেলেঘাটায় তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালের কালী পুজো উদ্বোধন করেছিলেন সাকিব। প্রসঙ্গত, সাকিবকে দিয়ে পুজো উদ্বোধন করানোয় এপার বাংলার হিন্দু মৌলবাদীরাও সমালোচনায় মুখর হয়েছিল। তারপর বাংলাদেশেও একই ঘটনার সম্মুখীন হতে হল সাকিবকে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More