কন্যাদানের পর চোখে জল মুকেশ-নীতার, আবেগপ্রবণ টুইট বিগ বি’র

‘উঙ্গলি পকর কে তুনে চলনা সিখায়া থা না

দেহেলিজ উচি হ্যায় ইয়ে পার করা দে

বাবা ম্যায় তেরি মালিকা, টুকরা হু তেরে দিল কা

এক বার ফির সে দেহেলিজ পার করা দে।‘

মেঘনা গুলজার পরিচালিত ‘রাজি’ ছবির জনপ্রিয়তার সঙ্গে পাল্লা দিয়েছিল ছবির এই গানও। হর্ষদীপ কউরের গলায় এ গান মন ছুঁয়েছে এ দেশের সব মেয়ের। মনে মনে সব মেয়েই ভেবেছেন এ তো তাঁদের মনে কথা। যাঁরা বিবাহিত তাঁরা জানেন, এ গানের প্রতিটি কথা নিজের বিয়ের সময় বাবাকে বলেছেন তাঁরা। কেউ বাবার কানে কানে, কেউ বা নিজের মনের গোপনে। আর যাঁদের বিয়ে হয়নি, তাঁরা হয়তো ভবিষ্যতে বলবেন, এমনটাই ভেবে রেখেছন।

ভারতবর্ষে একটা রীতি আছে। অলিখিত নিয়মও বলা যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাড়িতে মেয়ে রয়েছে মানে তিনি তাঁর বাবার আদরের দুলালী। পরিবারে পুত্রসন্তান থাকলেও বাবারা যেন মেয়েদের প্রতি একটু বেশিই স্নেহপ্রবণ। আর কন্যাসন্তানের প্রতি অত্যন্ত স্নেহপরায়ণ এই বাবাদের জীবনের সবচেয়ে কঠিন মুহূর্ত ‘কন্যাদান’-এর সময়।

কথায় বলে, বাড়িতে কন্যাসন্তানের জন্মের পরেই নাকি মা-বাবা মন শক্ত করে নেন। মেয়েকে একদিন পরের ঘরে পাঠাতে হবে জেনেই বড় করে তোলেন তাঁকে। তবে বাইরে থেকেই যতই শক্ত হোন না কেন কন্যাদানের সময়ে বোধহয় চোখে জল আসে সব বাবার। এমনটাই হয়েছে মুকেশ আম্বানির ক্ষেত্রেও। তিনি ধনকুবের, বিপুল সম্পত্তির মালিকানা তাঁর, চাইলে বিশ্বের সবকিছুই বোধহয় পেতে পারেন হাতের মুঠোয়—–তবুও দিনের শেষে তিনি একজন বাবা। আর সেই বাবার আবেগের সঙ্গে মিল রয়েছে একজন ছাপোষা মধ্যবিত্ত বাবার। কারণ মেয়ের প্রতি বাবার ভালোবাসা সব ক্ষেত্রেই নিখাদ। অর্থনৈতিক স্ট্যাটাস দিয়ে তাতে কোনও ভেদাভেদ হয় না।

একমাত্র মেয়ে ঈশার বিয়ে দিয়েছেন মুকেশ আম্বানি। আয়োজনও এলাহি। কিন্তু এতো সবের মাঝে মুহূর্তের জন্য হলেও চোখ ছলছল করেছে মুকেশের। লেন্সবন্দি হয়ে সে ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মেয়ের বিয়েতে বাবা কাঁদবেন সেটাই তো খুব স্বাভাবিক। তবে সদ্য বিবাহিত মেয়ের বাবার কষ্ট বোধহয় এ দিনের বিয়ের আসরে উপস্থিত একজন খুব ভালোভাবেই আন্দাজ করেছিলেন। বুঝেছিলেন, সদ্য কন্যাদান করা পিতার আবেগ। তিনি অমিতাভ বচ্চন। তিনিও এক মেয়ের বাবা। বহুদিন হলো শ্বেতার বিয়ে দিয়েছেন। তবু আজ মুকেশ আম্বানির সঙ্গে নিজের যেন অনেক মিল খুঁজে পেলেন বিগ বি। হয়তো ক্ষণিকের জন্য তাঁরও মনে পড়ে গিয়েছিল শ্বেতার বিয়ের কন্যাদানের মুহূর্ত। আবেগপ্রবণও হয়ে পড়েন সিনিয়র বচ্চন। মুকেশের উদ্দেশে লেখেন একটি বার্তা। টুইট করে অমিতাভ জানান, “একজন বাবার কাছে সবচেয়ে কষ্টের মুহূর্ত হলো মেয়ের বিয়ের সময় কন্যাদান করা।“

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More