জীবনে প্রথম মৃণাল সেনের ছবিতেই ভয়েস ওভার দিয়েছিলাম: অমিতাভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তখন কলকাতায় সেলসের চাকরি করেন অমিতাভ বচ্চন। ১৯৬৯ সাল। আর পরিচালক মৃণাল তাঁর ছবির জন্য খুঁজে বেড়াচ্ছেন এমন একজনকে, যাঁর কণ্ঠস্বর গোটা ভুবনকে মোহিত করবে। সেলসের চাকরির ফাঁকে স্টুডিও পাড়ায় তাঁর যাতায়াতের কথা বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে আগেগেও বলেছেন বিগবি। বর্ষীয়ান পরিচালক মৃণাল সেন-এর জীবনাবসানের পর শোক বার্তায় টুইট করে জানালেন,মৃণাল সেন পরিচালিত ভুবন সোম ছবির ভয়েস ওভারই তাঁর প্রথম কাজ।

রবিবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ ৩৮, পদ্মপুকুর রোডে নিজের বাড়িতেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯৫। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন মৃণাল সেন। রবিবার সকালে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় এই বর্ষীয়ান পরিচালকের। এরপর অমিতাভ শোকজ্ঞাপনের সঙ্গে সেই ১৯৬৯ সালের ভয়েস ওভারের স্মৃতিচারণা করেন। ওটাই ছিল অমিতাভ বচ্চনের সেলুলয়েড দুনিয়ার প্রথম কাজ। এই ছবির জন্যই ‘পদ্মভূষণ’ পেয়েছিলেন মৃণালবাবু। কিন্তু ‘ভুবন সোম’ যে বিগবি-রও ডেবিউ ফিল্ম, তা বোধহয় জানা ছিল না অনেকেরই। এরপর ওই বছরেই খোয়াজা আহমেদ আব্বাস নির্দেশিত ‘সাত হিন্দুস্তানি’ ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান অমিতাভ। অন্যান্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন উৎপল দত্ত, মধু এবং জালাল আগা। বক্স অফিসে হিট না হলেও, বচ্চন এই ছবিতে অভিনয়ের সুবাদে শ্রেষ্ঠ নতুন অভিনেতা হিসেবে তাঁর প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান।

মৃণাল সেনও একবার সাক্ষাৎকারে অমিতাভের ভয়েস ওভার দেওয়ার সেই ঘটনার কথা বলেছিলেন। এবং জানিয়েছিলেন, তখন বচ্চনের হাতে যে পারিশ্রমিক দেওয়া হয়েছিল, সেটা একেবারেই সামান্য। এ দিন অমিতাভ তাঁর টুইটে মৃণালবাবুর সৃজনশীলতার কথাও উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

চলে গেলেন ‘ভারতীয় সিনেমার আইজেনস্টাইন’ মৃণাল সেন

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More