বিকট শব্দে আকাশ থেকে পড়ল প্রকাণ্ড পাথর, ধানক্ষেতে ৪ ফুট গর্ত! উল্কা নাকি?

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ধানের ক্ষেতে চাষের কাজে ব্যস্ত ছিলেন চাষিভাইরা। আচমকাই প্রচণ্ড এক শব্দে বুক কেঁপে উঠল সকলেরই। বুঝলেন আকাশ থেকে কিছু একটা খসে পড়েছে। ছুটে গিয়ে দেখেন ক্ষেতের মাঝেই তৈরি হয়েছে বিশাল একটা গর্ত। আর তার মধ্যেই পড়ে রয়েছে একটা গোল বল। দেখতে কতকটা ফুটবলের মতো হলেও, ঠিক মসৃণ গোলাকার নয়। রুক্ষ পাথুরে হাল্কা বাদামি রঙয়ের ওই গোলাকার জিনিসটার গা থেকে তখনও বেরোচ্ছে ধোঁয়া। 

এ ঘটনা বিহারের মধুবনী জেলার। গত বুধবার বিকেলে এই জেলারই একটি ধান ক্ষেতে হঠাৎই বিকট শব্দ করে আকাশ থেকে খসে পড়েছে এই গোলাকার বস্তু। যার আশেপাশে লোহার জিনিস নিয়ে গেলেই আটকে যাচ্ছে। এটা স্পষ্ট যে শক্তিশালী চৌম্বক ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে ওই বস্তুটির চারপাশে। অমসৃণ গোলাকার ওই পাথুরে জিনিসটার গায়ে আবার রয়েছে অসংখ্য খাঁজ। মধুবনীর জেলাশাসক কপিল অশোক জানিয়েছেন, ক্ষেতের মধ্যে প্রায় ৪ ফুট গভীর গর্ত করে দিয়েছে এই গোলাকার বস্তু। আপাত দৃষ্টিতে দেখে সকলেই ভাবছেন এটা উল্কাপিণ্ড। ওজনে প্রায় ১৫ কিলোগ্রাম এই জিনসটি আপাতত রাখা হয়েছে বিহারের মিউজিয়ামে। 

প্রথমে অবশ্য সবটা দেখে হকচকিয়ে গিয়েছিলেন চাষিরা। আঁতকে উঠেছিলেন অনেকেই। তবে প্রাথমিক ধাক্কা সামলে তাঁদের মধ্যেই কেউ কেউ সাহস করে পাথুরে জিনিসটা জমা করে দেন স্থানীয় প্রসাসনের কাছে। তারপর তাদের তরফেই পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য এই জিনিসটা মিউজিয়ামে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিহারের শ্রীকৃষ্ণ সায়েন্স সেন্টারের বিজ্ঞানীরা আপাতত পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছেন এই পাথরটিকে নিয়ে। বিজ্ঞানীদের অনুমান, এটি উল্কাপিণ্ডই। কারণ এর গায়ে থাকা খাঁজ যুক্ত অংশ কেবলমাত্র কোনও উল্কাপিণ্ডেই থাকা সম্ভব। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, সাধারণত উল্কা পৃথিবীর বায়ুস্তর ভেদ করার সময় এই খাঁজ তৈরি হয়ে থাকে। কিন্তু এর পাশাপাশি বিজ্ঞানীরা এ-ও জানিয়েছেন যে, পুরো পরীক্ষার পরে তবেই সঠিক ভাবে বলা সম্ভব হবে যে এটা উল্কাপিণ্ড, না কি অন্যকিছু।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More