নতুন করোনা ছড়াচ্ছে, বিদেশি নাগরিকদের জন্য দেশের দরজা বন্ধ করল ইজরায়েল

নতুন মহামারীর আতঙ্ক ছড়াচ্ছে, এমনটাই দাবি ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর। তাঁর বক্তব্য, এমন এক ভাইরাস ছড়াচ্ছে যার বিষয়ে কিছুই জানা নেই। তাই ভয়ের কারণ রয়েছে।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ব্রিটেন শুধু নয় বিশ্বের প্রায় সব দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ আপাতত বন্ধ রাখছে ইজরায়েল। ব্রিটেনে লাগামহীনভাবে ছড়িয়ে পড়ার করোনার নতুন স্ট্রেন নিয়ে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে ইউরোপে। নয়া বিপদ থেকে বাঁচতে ইতিমধ্যেই ব্রিটেনকে ‘একঘরে’ করেছে বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, সৌদি আরব সহ আরও কয়েকটি দেশ। এবার ইজরায়েলও সেই পথেই হাঁটল।

নতুন মহামারীর আতঙ্ক ছড়াচ্ছে, এমনটাই দাবি ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর। তাঁর বক্তব্য, এমন এক ভাইরাস ছড়াচ্ছে যার বিষয়ে কিছুই জানা নেই। তাই ভয়ের কারণ রয়েছে। হতেই পারে মিউটেশনের কারণে করোনাভাইরাস-২ ছড়িয়ে পড়ছে ইউরোপে। সতর্কতা তাই কয়েকগুণ বাড়ানো হচ্ছে।

নেতানিয়াহু বলেছেন, বিদেশি পর্যটকদের জন্য দেশের দরজা বন্ধ করে দেওয়া সত্যিই খুব কঠিন। কিন্তু আগামী কিছুদিন এই কড়াকড়ি করতেই হবে। কারণ দেশে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। ১০ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন। এরপের প্রবীণ ও রোগীদের টিকা দেওয়া হবে। এমন সময় নতুন ভাইরাল স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।

ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, দক্ষিণ ইংল্যান্ডের কয়েকটি জায়গায় নতুন ভাইরাল স্ট্রেনের খোঁজ মিলেছে, যার নাম বি.১.১.৭। সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বরেই নাকি এই নতুন স্ট্রেনের হদিশ মিলেছিল। অক্টোবর থেকে তা লাগামছাড়া হয়ে যায়। বিশেষত দক্ষিণ-পূর্ব ব্রিটেনে হু হু করে ছড়িয়ে পড়েছে নতুন ভাইরাল স্ট্রেন। ব্রিটেনের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই নতুন স্ট্রেন কতটা সংক্রামক জানা নেই, তবে এর ট্রান্সমিশন রেট তথা ছড়িয়ে পড়ার হার সাঙ্ঘাতিক। খুব তাড়াতাড়ি মানুষের শরীরে ছড়াতে পারে। নতুন ভাইরাল স্ট্রেন ইতিমধ্যেই হিমশিম খেতে শুরু করেছে ব্রিটিশ প্রশাসন। সে দেশের স্বাস্থ্যসচিব ম্যাট হ্যানকক বলেছেন, পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গেছে।

অস্ট্রেলিয়া, নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্কে ছড়িয়ে পড়েছে করোনার নতুন স্ট্রেন। ইতালিতেও গতকাল থেকে নতুন ভাইরাল স্ট্রেন ছড়াচ্ছে বলে খবর মিলেছে। এর পরেই ব্রিটেন থেকে আসা বিমান বাতিল করে দিয়েছে একাধিক দেশ। বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ড ব্রিটেন থেকে বিমান চলাচল বন্ধ করার পাশাপাশি, সীমান্তও সিল করে দিয়েছে। ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান চলাচলের পাশাপাশি, জাহাজ চলাচলও বন্ধ করে দিয়েছে ফ্রান্স। নেদারল্যান্ডসের তরফে অন্তত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব ধরণের পরিবহণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ব্রিটেনের সঙ্গে। ভারতও আগামী ৩১ ডিসেম্বর অবধি ব্রিটেনের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ রেখেছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More