করোনা টেস্ট করবে এই রোবট, মাস্ক না পরলে বকাঝকাও করবে

এই রোবটের নাম সিরা-০৩। যে কোনও কাজ করতে পারবে সিরা। কোভিড রোগীদের টেস্ট করানো, শরীরে তাপমাত্রা মাপা, প্রয়োজনে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যান্ত্রিক মানুষ হলেও করোনা যোদ্ধা!  সংক্রমণ মোকাবিলায় কোমর বেঁধে কাজ করবে। কোভিড টেস্ট করবে, করোনা রোগীদের সেবাযত্ন করবে, খাবার-ওষুধ পৈঁছে দেবে সঠিক সময়। চিকিৎসার কাজেও সাহায্য করবে। আবার কথা কথাও বলবে। রোগীদের সুবিধা-অসুবিধা বুঝে ডাক্তারের কাছে খবর পৌঁছে দেবে। নানা কাজের কাজি এই রোবট।

করোনা মোকাবিলায় রোবট ব্যবহার করার প্রযুক্তি আগেই এনেছে ভারত। করোনা রোগীদের কাছে থেকে চিকিৎসা করতে গিয়ে একের পর এক সংক্রামিত হচ্ছেন ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীরা। ঘন ঘন আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভিসিট করতে গিয়ে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে হাসপাতালের বাকি কর্মীদের মধ্যেও। সংক্রামিত রোগীদের ছোঁয়া বাঁচিয়ে তাঁদের দেখাশোনা ও চিকিৎসার জন্য তাই রোবটের কথাই ভেবেছেন বিজ্ঞানীরা। মিশরেও এবার হাসপাতাল-নার্সিংহোম ও কোভিড সেন্টারগুলিতে রিমোট-কন্ট্রোল রোবট নামালেন গবেষকরা।

Egyptian inventor trials robot that can test for COVID-19 | Reuters

করোনা রোগীদের দেখাশোনা করবে মানুষের মতোই, এমন রোবট বানিয়েছেন বিজ্ঞানী মহম্মদ এল-কোমি। জানিয়েছেন, সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতেই কোভিড সেন্টারগুলোতে রোবট ব্যবহার করা বেশি প্রয়োজন। বিশেষত কোভিড রোগীদের ওয়ার্ডে ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি। হাসপাতালের বেড, ফ্লোরে ভাইরাস ড্রপলেট জমে থাকে। স্যানিটাইজ করলেও বিপদের ঝুঁকি থেকেই যায। তাই ডাক্তার, নার্সদের মধ্যে সংক্রমণ বেশি ছড়িয়ে পড়ছে। রোবট সেদিক থেকে অনেক নিরাপদ।

Egyptian engineer invents robot for COVID-19 diagnosis, medical care -  World - Chinadaily.com.cn

গবেষক বলছেন, এই রোবটের নাম সিরা-০৩। যে কোনও কাজ করতে পারবে সিরা। কোভিড রোগীদের টেস্ট করানো, শরীরে তাপমাত্রা মাপা, প্রয়োজনে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া। করোনা পরীক্ষার পরে টেস্ট রিপোর্টও রোগীদের কাছে পৌঁছে দিতে পারবে সিরা। তার রোবোটিক হাত রক্ত পরীক্ষা করতে পারবে। ইকোকার্ডিওগ্রাম ও এক্স-রে করার প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে এই রোবটকে।

Oman Observer - Oman Observer

রোগীর শারীরিক পরীক্ষা করেই বুঝে যাবে সংক্রমণ রয়েছে কিনা। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কতটা, চেস্ট এক্স-রে করার দরকার আছে কিনা তাও বুঝতে পারবে এই রোবট। একদিকে ডাক্তার ও অন্যদিকে নার্সের মতো কাজ করবে।

নাক, মুখ বা গলা থেকে নমুনা সংগ্রহের কাজ ভালই পারবে সিরা। স্বাস্থ্যকর্মীদের ঝুঁকি নিয়ে আর এই কাজ করার দরকার পরবে না। তাছাড়া মাস্ক পরার ব্যাপারেও সচেতন করবে। হাসপাতাল ওয়ার্ডে মাস্ক ছাড়া ঘুরলেই তাকে বকাঝকা করবে এই রোবট। এমনভাবেই তাকে প্রগ্রোমিং করা হয়েছে। ১০-১৫ কিলোগ্রাম অবধি ওজন বইতে পারবে এই রোবট, বলেছেন গবেষক হরজিৎ। ১৫-২০ মিটারের মধ্যে চলাফেরা করতে পারবে। টানা এক ঘণ্টারও বেশি কাজ করতে পারবে। উন্নতমানের ব্যাটারি লাগানো রয়েছে এই রোবটের সিস্টেমে। এই ব্যাটারি তিন-চার ঘণ্টা চলবে।

ভারতে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য ‘কোভিড-১৯ ওয়ারবট’ বানিয়েছেন ত্রিপুরার এক গবেষক। অন্যদিকে, গুয়াহাটির ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে রোবট তৈরির প্রক্রিয়া চলছে। কেরল ও জয়পুরের কয়েকটি হাসপাতালে ইতিমধ্যেই কাজে লেগে পড়েছে যান্ত্রিক মানুষরা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More