কোভিডে মৃতের সৎকারে বাধা কাশ্মীরে, অর্ধদগ্ধ দেহ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ পরিবার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিড আক্রান্ত হয়ে এক বৃদ্ধের মৃত্যুর পর তাঁর সৎকার ঘিরে চূড়ান্ত অব্যবস্থার ঘটনা ঘটল জম্মু ও কাশ্মীরে। দাহ করার সময়ে স্থানীয়দের বাধায় অর্ধদগ্ধ দেহ নিয়ে সেখান থেকে কার্যত পালিয়ে প্রাণে বাঁচতে হল মৃতের পরিবারকে। গোটা ঘটনায় জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশ প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগের বিরুদ্ধে অব্যবস্থার অভিযোগ তুলেছেন মৃতের ছেলে।

জম্মুর একটি হাসপাতালে গতকাল, মঙ্গলবার মৃত্যু হয় এক ৭২ বছর বয়সী বৃদ্ধের। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। দোদা জেলায় একটি জায়গায় ওই ব্যক্তির সৎকারের ব্যবস্থা করে ভূমিরাজস্ব দফতর এবং পুলিশ। মৃতের স্ত্রী, দুই সন্তান ও কয়েকজন ঘনিষ্ঠ আত্মীয় যান সৎকার করতে। কিন্তু এরপরই বিপত্তি বাঁধে।

মৃতের ছেলের অভিযোগ, অর্ধেক দাহ হওয়ার পরেই স্থানীয় জনতা ঘিরে ফেলে তাঁদের। মারমুখী হয়ে ওঠে বলেও অভিযোগ। এরপর কোনওক্রমে অর্ধদগ্ধ দেহ নিয়ে স্থানীয় থানার দ্বারস্থ হয় মৃতের পরিবার। মৃতের ছেলে সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, অ্যাম্বুলেন্স চালক তাঁদের গণপিটুনির হাত থেকে বাঁচিয়েছেন। পুলিশ কোনও সাহায্য করেনি বলেও তাঁর অভিযোগ।

প্রসঙ্গত, জম্মু ও কাশ্মীরে করোনা আক্রান্ত হয়ে এটি চতুর্থ মৃত্যু। এরপর স্থানীয় থানাও কার্যত দায় ঝেড়ে ফেলে বলে জিএমসি হাসপাতালে যেতে। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থাতেই মৃত্যু হয় এই বৃদ্ধের। মৃতের বড় ছেলে আরও বলেন, আমরা প্রশাসনকে বলি আমাদের বাড়ি যেই জেলায় সেখানে দাহ করার ব্যবস্থা করে দিন। কিন্তু তারা কর্ণপাত করেনি।

শেষপর্যন্ত কয়েক ঘণ্টা ধরে অর্ধেকদগ্ধ দেহ নিয়ে টানা হেচঁড়া করার পর, সন্ধেবেলা জম্মুর ভগবতী নগরের একটি মাঠে ওই বৃদ্ধের সৎকার সম্পন্ন হয়। গোটা ঘটনা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে উপত্যকার প্রশাসন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More