শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

আরও ১০ হাজার কোটি টাকা ঢালবেন মুকেশ, শিল্প সম্মেলনে বিনিয়োগের প্রস্তাব শিল্পপতিদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গতবার বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটের ( বিজিবিএস ) বক্তৃতায় মুকেশ আম্বানি বলেছিলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ওয়েস্ট বেঙ্গল ‘বেস্ট বেঙ্গল’ হবে।” এ বার এসে বললেন, “এই বাংলাকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেটা আমরা দেখতেও পাচ্ছি।”

এ দিন তিনি বলেন, “গত বছর থেকে এই রাজ্যে ২৮ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ করেছি আমরা। আরও ১০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ হবে এ বছর। বেশ কয়েকটি প্রকল্প করা হবে। যেমন, জিও গিগা ফাইবার প্রোজেক্ট। পশ্চিমবঙ্গের প্রত্যেকটা বাড়িতে স্মার্ট ফোন আসবে। জিও’র ৫০০টি রিটেল শপ হবে। সামনের দু’বছরে ৫০ হাজার যুবক-যুবতী চাকরি পাবেন। এ রাজ্যে ১ হাজার জিও সার্ভিস পয়েন্ট তৈরি করতে চাইছি আমরা।”

রিলায়েন্স গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক এ দিন নিজের বক্তৃতায় আরও বলেন, “বর্তমানে দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের জিডিপি সবথেকে বেশি। এছাড়াও কৃষিক্ষেত্রে কৃষকদের আয় এখন অনেকটা বেড়েছে। বাংলার এখন সময় হয়েছে ডিজিটাল বিপ্লবের। সেই দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলা।” এছাড়াও দু দশকের মধ্যে ভারত বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিণত হবে বলে আশা মুকেশ আম্বানির।

এই ঘোষণার পরেই আম্বানি বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গ ‘সুইট বেঙ্গল’-এ পরিণত হবে। এ রাজ্যের সঙ্গে রিলায়েন্সের মধুর সম্পর্ক বজায় থাকবে বলেই আশ্বাস দেন তিনি।

নিউটাউনের বিশ্ব বাংলা কনভেনশন সেন্টারে বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটের ( বিজিবিএস ) প্রথম দিনেই একগুচ্ছ বিনিয়োগের কথা ঘোষণা করলেন দেশের সেরা শিল্পপতিরা।

মুকেশ আম্বানি ছাড়াও আরও বেশ কিছু প্রথম সারির শিল্পপতি এই বিজিবিএস-এ যোগ দিয়েছেন। অনেক বিনিয়োগের কথাও ঘোষণা করা হয়েছে নিউটাউনের কনভেনশন সেন্টার থেকে।

জিন্দল গোষ্ঠীর কর্ণধার সজ্জন জিন্দল বলেন, এই রাজ্যে ১ হাজার মেগাওয়াট পাম্প স্টোরেজের প্রজেক্ট নেওয়া হয়েছে। এটি একটি বিলিয়ন ডলার প্রজেক্ট। এ ছাড়া শালবনিতে সিমেন্ট কারখানার উৎপাদন দ্বিগুণ করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। ভারত-বাংলাদেশ দেশভাগ নিয়ে মিউজিয়াম তৈরির পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

মিত্তল গোষ্ঠীর কর্ণধার রাজন ভারতী মিত্তল জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে আরও ২০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে চলেছেন তাঁরা। এই বিনিয়োগের ফলে ৩০ হাজার কর্মসংস্থান হবে। এ রাজ্যের নামকরা শিল্পপতি সঞ্জীব গোয়েঙ্কা জানিয়েছেন, এ রাজ্যে ২৩ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছেন তাঁরা। আগামী দিনে আরও বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।

শিল্পপতি নিরঞ্জন হিরানন্দানি জানিয়েছেন, “আমরা ইতিমধ্যেই ৩ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি। হলদিয়া পর্যন্ত পাইপলাইন নিয়ে যাওয়ার জন্য আরও ২ হাজার কোটি টাকা নিয়োগ করতে চাই। পশ্চিমবঙ্গে বিনিয়োগ করলে বাংলাদেশের সঙ্গে যোগাযোগ করা আমাদের পক্ষে অনেক সহজ হবে।”

আইটিসি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর সঞ্জীব পুরি বলেন, “আমরা এখানে অতিথি হয়ে এসেছি। ইতিমধ্যেই ৪ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই সেই কাজ বাস্তবায়িত হতে শুরু করবে। আমরা আরও ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করছি।”

আরও পড়ুন

Exclusive: কুণাল ঘোষকে রবিবার শিলংয়ের দফতরে হাজিরার নির্দেশ সিবিআইয়ের

Shares

Comments are closed.