দেশে ১০০ বিমানবন্দর হবে পাঁচ বছরে! খরচ ১ লক্ষ কোটি টাকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অর্থনীতির উন্নয়নে এবার বিমান যোগাযোগে বিরাট পরিমাণ টাকা ঢালতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সূত্রের খবর, দেশের কোণায় কোণায় বিমান বিমান যোগাযোগ তৈরি করতে ২০২৪ সালের মধ্যে ভারতে তৈরি হবে ১০০টি বিমানবন্দর। উদ্দেশ্য একটাই, অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা।

দেশের ছোট ছোট শহরগুলির মধ্যে বিমান যোগাযোগ গড়ে তোলার জন্য এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। গত সপ্তাহে একটি বেসরকারি বৈঠকে এমনই আলোচনা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। গোটা প্রকল্পের রোড ম্যাপের জন্য ভারতের অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রক খুব শিগগির কাজ শুরু করবে বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে।

গত ছ’বছরের মধ্যে মোট জাতীয় উৎপাদনের বৃদ্ধির হার সবচেয়ে কমে গিয়েছে। অর্থনীতির হাল নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সমালোচনার সুর চড়াচ্ছে বিরোধীরা। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগেই জানিয়েছিলেন, তাঁর লক্ষ্য ২০২২ সালের মধ্যে ভারতের অর্থনীতিকে ৫০০ ট্রিলিয়ন ডলারে নিয়ে যাওয়া। সেই লক্ষ্যেই বিমান যোগাযোগের এই পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে।

যদিও অনেকের মতে, বহু ছোট শহরে বিমানবন্দর এখনই আছে। কিন্তু যাত্রীর অভাবে সেই রুটগুলি একেবারেই নিয়মিত নয়। বিমান সংস্থাগুলিও এই সমস্ত রুটে বিমান চালাতে খুব একটা আগ্রহ দেখায় না। বাংলায় অণ্ডাল বিমানবন্দরের ক্ষেত্রেও এই ব্যাপারটি প্রযোজ্য। সমস্ত সীমাবদ্ধতা, বাস্তব পরিস্থতির কথা মাথায় রেখেই এই পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে বলে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে।

বিনিয়োগ টানার জন্য দেশের ছোট ছোট শহরকে বিমান যোগাযোগের আওতায় আনতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে খবর। ২০৩৫ সালের মধ্যে যাতে ভারতে বাণিজ্যিক বিমানবন্দরের সংখ্যা ৪৫০টিতে গিয়ে দাঁড়ায় সেই লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ বলে সূত্রের খবর।

ড্রোন ব্যবহারের ক্ষেত্রেও বড় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের বক্তব্য, ২০২১ সালের মধ্যে ড্রোন করিডোর প্রস্তুত করবে ভারত। ২০২৩ সালের মধ্যে যাতে ড্রোনের মাধ্যমে পণ্য সরবরাহ করা যায় সেই ব্যাপারেও পদক্ষেপ করবে সরকার। সন্দেহ নেই বিমানবন্দরের সংখ্যা বাড়লে বিপুল কর্মসংস্থানও তৈরি হবে।

পড়ুন ‘দ্য ওয়াল’ পুজো ম্যাগাজিন ২০১৯ – এ প্রকাশিত গল্প

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More