জম্মু-কাশ্মীরের সোপিয়ানে জঙ্গিদের গুলিতে খুন পঞ্জাবের আপেল ব্যবসায়ী

দ্য ওয়াল ব্যুরো : প্রথমে রাজস্থানের ট্রাক চালক। তারপর ছত্তীসগড়ের শ্রমিক। একই দিনে পঞ্জাবের আপেল ব্যবসায়ী। তিনদিনে তিনজনকে গুলি করে হত্যা করল জঙ্গিরা।

পুলিশ সূত্রে খবর নিহত ব্যক্তির নাম চরণজিৎ সিং। পঞ্জাবে আপেলের ব্যবসা আছে তাঁর। আপেল কিনতে জম্মু-কাশ্মীরে এসেছিলেন তিনি। দক্ষিণ কাশ্মীরের সোপিয়ানে তাঁকে গুলি করে জঙ্গিরা। সেখানেই মারা যান তিনি। গুলি লেগেছে তাঁর সঙ্গে থাকা আরেক ব্যক্তিরও। তাঁকে প্রথমে পুলওয়ামা সরকারি হাসপাতাল ও তারপরে শ্রীনগরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁর অবস্থাও সংকটজনক বলেই জানা গিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, অন্য রাজ্য থেকে উপত্যকায় আসা শ্রমিকদেরই বারবার নিশানা করছে জঙ্গিরা। উদ্দেশ্য একটাই। সবার মনে ভয় ঢুকিয়ে দিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্যে ক্ষতি করা।

বুধবার সকালেই ছত্তীসগড়ের এক শ্রমিককে হত্যা করে জঙ্গিরা। নিহত শ্রমিকের নাম সেঠি কুমার সাগর। একটি ইটভাঁটায় কাজ করতেন তিনি। ঘটনার দিন এলাকার একজনের সঙ্গে রাস্তা দিয়ে হাঁটছিলেন তিনি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আচমকাই দু’জন জঙ্গি এসে সেঠি কুমারের উপর গুলি চালায়। রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন ওই শ্রমিক। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। পুলিশ জানিয়েছে, ওই দুই জঙ্গির খোঁজে জারি রয়েছে তল্লাশি। পাশাপাশি উপত্যকার চাষিদের অযথা ভয় পেতে বারণ করেছে পুলিশ। জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ তাঁদের সবাইকে যথাযথ নিরাপত্তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

সোমবার যে ট্রাক চালককে মেরে ফেলা হয়েছে তিনি ছিলেন রাজস্থানের বাসিন্দা। ট্রাকে করে ফল নিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু গন্তব্যে পৌঁছনোর আগেই জঙ্গিদের গুলিতে ঝাঁঝরা হয়ে যান ওই ট্রাকচালক। পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার খুনে যুক্ত ছিল দু’জন জঙ্গি। তাদের মধ্যে একজন পাকিস্তানের নাগরিক।

গত ৫ অগস্ট ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই বারবার উত্তপ্ত হয়েছে উপত্যকা। মঙ্গলবার শ্রীনগরের লালচকে বিক্ষোভ দেখাতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন ফারুক আবদুল্লার মেয়ে এবং বোন। গত সপ্তাহেও শ্রীনগরে গ্রেনেড হামলা করেছিল জঙ্গিরা। আহত হয়েছিলেন অন্তত ৭ জন। এই হামলার আগে দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগেও গ্রেনেড হামলা করেছিল জঙ্গিরা। সেই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন ১৪ জন। মোবাইল পরিষেবা চালু হলেও এখনও কাশ্মীরে চালু হয়নি ইন্টারনেট। রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক অবশ্য আশ্বাস দিয়েছেন যে খুব দ্রুত কাশ্মীরে চালু হবে ইন্টারনেট পরিষেবা।

পড়ুন দ্য ওয়াল-এর পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More