তামিলনাড়ুর জোটে জট, বেরিয়ে যেতে চায় কংগ্রেস, অসন্তুষ্ট বামেরাও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলার জোটের জট প্রায় কেটে গেলেও এখনও পুরোটা পরিষ্কার হয়নি। এর মধ্যেই তামিলনাড়ুতে বিরোধী জোটে বড়সড় জট পেকেছে। কংগ্রেস যে সংখ্যক আসন দাবি করেছিল, ডিএমকে তা ছাড়তে রাজি নয়। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত যা খবর তাতে তামিলনাড়ুর কংগ্রেস নেতারা রাহুল গান্ধীকে বার্তা পাঠিয়ে বলেছেন, একাই লড়ুক দল। অন্যদিকে ডিএমকে যে ভাবে জোটের মধ্যে একাধিপত্য কায়েম করতে চাইছে তাতে অসন্তুষ্ট বামেরাও।

শুক্রবার ডিএমকে-র সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল সিপিএম, সিপিআই, ভিসিকের নেতারা। সেই বৈঠকের পর দ্রাবিড় মুন্নেত্রা কাঝাঘাম তথা ডিএমকে ও ভিসিকে সাংবাদিক বৈঠক করে আসন সমঝোতার কথা জানিয়ে দিলেও সেখানে ছিল না সিপিএম ও সিপিআই।

কংগ্রেস ৪০টি আসন দাবি করেছিল ডিএমকে-র কাছে। কিন্তু এমকে স্ট্যালিনরা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ১৮টির বেশি আসন দেওয়া সম্ভব নয়। কংগ্রেস নেতারা সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, আসন নিয়ে আলোচনা চলতে পারে। ৪০-এর জায়গায় ৩০টি আসন হতে পারে। তাই বলে ১৮? এ তো অপমান! অন্যদিকে দুই বাম দলকে ৮টি আসন দিতে চাইছে ডিএমকে। সিপিএম, সিপিআইয়ের দাবি অন্তত ১৬-১৮টি আসন।

তবে তামিলনাড়ু প্রদেশ কংগ্রেসের এক নেতা সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, রাহুল গান্ধীই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন এ ব্যাপারে যে, দল একা লড়বে নাকি জোটে থেকে লড়াই করবে। আবার ডিএমকে-র একটা অংশ স্ট্যালিনকে বলেছে, কংগ্রেস এই আসনে রাজি হলে হোক না হলে আর তোয়াজ করার দরকার নেই। জানা গিয়েছে, সেই কট্টরবাদীদের স্ট্যালিন বুঝিয়েছেন, কংগ্রেসের ভোট শতাংশ গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। শেষ পর্যন্ত দল চেষ্টা করে যাবে জোটে সম্পূর্ণ করার।

তা ছাড়া তামিল কংগ্রেসের নেতারা এও বলছেন, রাহুল গান্ধী সবসময় চান বিজেপির বিরুদ্ধে সার্বিক জোট হোক। অন্যদিকে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিও একই পন্থী। সীতারাম আবার তামিলনাড়ুরই ভূমিপুত্র। হতে পারে শেষ পর্যন্ত রাহুল-সীতারাম হস্তক্ষেপ করে তামিলনাড়ুর জোটকে পূর্ণতা দেবেন। কিন্তু ভোটের গোড়ায় এখনও জট পেকেই রয়েছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More