ভারতকে অশান্ত করার চেষ্টা পাক জঙ্গিদের, নাগরোটার তথ্য আন্তর্জাতিক মহলকে জানাল নয়াদিল্লি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতে বারবার হামলা চালিয়ে দেশের শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে জঙ্গিরা। আর এই কাজে তাদের সরাসরি সাহায্য করছে পাকিস্তান। সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের নাগরোটায় নাশকতার ছক কষেছিল পাক জঙ্গিরা। কিন্তু সেনার চেষ্টায় সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। এই প্রসঙ্গে সব তথ্য এবার আন্তর্জাতিক মহলের সামনে তুলে ধরলে নয়াদিল্লি। রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য দেশের প্রতিনিধিদের সামনেই এই তথ্য তুলে ধরেন কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রকের সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা।

১৯ নভেম্বর নাগরোটায় জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াই হয় নিরাপত্তারক্ষীদের। একটি ট্রাকের মধ্যে লুকিয়ে ছিল জঙ্গিরা। এই লড়াইয়ে চার জঙ্গি খতম হয়। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও বিস্ফোরক উদ্ধার হয়। জানা যায়, নিহত জঙ্গিরা সবাই পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ ই মহম্মদের সদস্য।

এই ঘটনার পরেই ভারতের তরফে এই জঙ্গি কার্যকলাপে পাকিস্তানের সরাসরি যুক্ত থাকার সব তথ্য আন্তর্জাতিক মহলের সামনে তুলে ধরার কাজ শুরু হয়। পাকিস্তানের মুখোশ খুলে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই মঙ্গলবার বৈঠকে সেই তথ্য দেন শ্রিংলা।বিদেশমন্ত্রক সূত্রে খবর, ভারতে থাকা বেশ কিছু দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে এই বৈঠক করেন শ্রিংলা। সেখানে আমেরিকা, রাশিয়া, ফ্রান্স, জাপানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন বলে খবর। তবে ছিলেন না ভারতে বসবাসকারী চিনের রাষ্ট্রদূত সান ওয়েডং। 

বৈঠকে বিদেশসচিব শ্রিংলা জানিয়েছেন, “গত বছর পুলওয়ামায় হামলার পরে ফের একটা বড় নাশকতার ছক কষেছিল জঙ্গিরা। সামনেই জম্মু-কাশ্মীরের ডিস্ট্রিক্ট ডেভেলেপমেন্ট কাউন্সিলের ভোট। এই ভোটে অশান্তি করার জন্যই এই পরিকল্পনা করা হয়েছিল। মুম্বইয়ে জঙ্গি হানার বর্ষপূর্তির কথা মাথায় রেখেও এই নাশকতার ছক কষেছিল জঙ্গিরা।”

এই বৈঠকে উপস্থিত এক প্রতিনিধি সংবাদমাধ্যমের সামনে জানিয়েছেন, “বিভিন্ন দেশের প্রধানদের কাছে নাগরোটা সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে জঙ্গিদের খতম করার পরে যে অস্ত্র ও বিস্ফোরক উদ্ধার হয়েছে তার তালিকাও দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনা থেকে স্পষ্টভাবে এটা বোঝা যাচ্ছে নাগরোটায় হামলা চালিয়েছিল জইশ জঙ্গিরা। দু’দিন আগে নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে সাম্বা সেক্টরে একটি সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়েছে নিরাপত্তারক্ষীরা। এই সুড়ঙ্গ নাশকতার জন্যই করা হয়েছিল বলে স্পষ্ট। সেই তথ্যও তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া জম্মু-কাশ্মীরে সাম্প্রতিক সময়ে যতগুলি জঙ্গি হামলা হয়েছে সেই তথ্যও প্রতিনিধিদের সামনে তুলে ধরা হয়েছে।”

বিদেশমন্ত্রকের তরফে আরও জানানো হয়েছে, এটাই ছিল প্রথম ধাপ। আগামী দিনে এই ধরনের আরও বৈঠক হবে। তখন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আরও সরব হবে ভারত, এমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More