মাওবাদীদের দৌরাত্ম্য বাড়ছে, রাশিয়ার কালাশনিকভ অ্যাসল্ট রাইফেল আনাচ্ছে সেনাবাহিনী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পে রাশিয়ার থেকে একে-২০৩ অ্যাসল্ট রাইফেলের চুক্তি আগেই হয়েছে ভারতের। ৬ লাখ কালাশনিকভ রাইফেলের জন্য চুক্তি হয়েছে। রাশিয়ার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে অ্যাসল্ট কালাশনিকভের উৎপাদন শুরু হবে উত্তরপ্রদেশের কোরভার অস্ত্র কারখানায়। তবে একে-২০৩ অ্যাসল্ট তৈরি হতে এখনও অনেক সময় লাগবে, তার আগেই রাশিয়ার নতুন প্রজন্মের একে-১০৩ কালাশনিকভের জন্য আবেদন করতে চলেছে তিন রাজ্যের সরকার। মাওবাদীদের উপদ্রব যেভাবে বাড়ছে, তাতে সেনাবাহিনীর হাতে এই মুহূর্তে শক্তিশালী অস্ত্র থাকা খুবই দরকার।

প্রতিরক্ষা সূত্রে খবর, মিজোরাম, ছত্তীসগড় ও মহারাষ্ট্র—এই তিন রাজ্যের সরকার একে-১০৩ কালাশনিকভ অ্যাসল্টের জন্য আবেদনপত্র জমা দেবে। আগামী একমাসের মধ্যে আধাসামরিক বাহিনীর হাতে এই রাইফেল পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

Armenia to Start Production of Russian AK103 Assault Rifles in July

সাম্প্রতিক সময়ে ছত্তীসগড়ে সিআরপিএফ বাহিনীর ওপর মাওবাদীদের হামলার পরেই এই পদক্ষেপ নিতে চলেছে সে রাজ্যের সরকার। প্রায় সাড়ে লক্ষ অ্যাসল্ট রাইফেলের জন্য আবেদন করা হবে। একে-১০১, একে-১০২, একে-১০৩ ও একে-১০৪ হল আধুনিক প্রজন্মের অ্যাসল্ট রাইফেল। ৫.৫৬ এমএম ও ৭.৬২ এমএম কার্তুজ ভরা যায়। উত্তরপ্রদেশের কারখানায় একে-১০৩ অ্যাসল্ট রাইফেলও তৈরি হবে বলে জানা যাচ্ছে।

Agreement Likely On Kalashnikov 103 Rifle Manufacture In India | Pakistan  Defence

রুশ প্রযুক্তির অত্যাধুনিক কালাশনিকভ রাইফেলের জন্য চুক্তি অনেকদিনই হয়েছে। ২০১৮ সালে এপ্রিল মাসে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের রাশিয়া সফরের সময় গোটা বিষয়টি বাস্তবায়িত হয় এবং চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তি অনুসারে রুশ প্রযুক্তি ব্যবহার করে এ দেশের অস্ত্র কারখানাতেই কালাশনিকভ রাইফেলের সর্বাধুনিক মডেল বানানোর অনুমতি পায় ভারত। চুক্তি অনুযায়ী, প্রথমে রাশিয়া থেকে ২০ হাজার একে-২০৩ রাইফেল কেনা হবে। প্রতিটি রাইফেলের দাম ৮০ হাজার টাকা। আগামী দিনে এই রাইফেলই ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ানদের হাতে দেখা যাবে। বাকি রাইফেলগুলি ভারতেই তৈরি হবে| ভারতের অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরি বোর্ডের শীর্ষ কর্তারা রাশিয়ায় রুশ কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে গোটা প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করেন| রাশিয়ার বিশেষজ্ঞরা এ দেশের অস্ত্র কারখানাগুলি ঘুরে সিদ্ধান্ত নেন কোন কারখানায় কালাশনিকভের সর্বাধুনিক মডেল তৈরির পরিকাঠামো আছে| উত্তরপ্রদেশের করভা অর্ডন্যান্স প্রজেক্ট শেষ পর্যন্ত এই অস্ত্র তৈরির বরাত পায়।

একে সিরিজের মধ্যে বর্তমানে সবথেকে শক্তিশালী এই রাইফেল। রুশ স্পেশ্যাল ফোর্স এই রাইফেল ব্যবহার করে। একে-৪৭ এর মতোই এই রাইফেলের চেম্বারেও ৭.৬২ x ৩৯ মিলিমিটার অ্যামুনেশন ফায়ার করার ক্ষমতা রয়েছে। প্রায় দু’দশকেরও বেশি সময় ধরে ভারতীয় সেনায় ব্যবহার করা ৫.৫৬ x ৪৫ মিলিমিটার অ্যামুনেশন ক্ষমতার ইনস্যাস (ইন্ডিয়ান স্মল আর্মস সিস্টেম) রাইফেলের পরিবর্তে এবার এই রাইফেল ব্যবহার করা হবে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More