গাজিয়াবাদে মেয়েদের সামনে গুলিবিদ্ধ সাংবাদিকের মৃত্যু, গ্রেফতার ৯

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোমবার দিল্লির কাছে গাজিয়াবাদে নিজের দুই মেয়ের সামনে গুলিবিদ্ধ হন এক সাংবাদিক। তাঁর নাম বিক্রম যোশী। গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। বুধবার সকালে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অপরাধে এখনও পর্যন্ত ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া দুই পুলিশকর্মীকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে।

সোমবার রাত সাড়ে ১০ টা নাগাদ দিল্লির কাছে গাজিয়াবাদে গুলিবিদ্ধ হন বিক্রম যোশী। সেই ঘটনার একাংশ ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে। তাতে দেখা যায় তিনি রাতে দুই মেয়েকে নিয়ে বাইকে চড়ে আসছিলেন। এমন সময় একদল দুষ্কৃতী তাঁদের ঘিরে ধরে। সাংবাদিককে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। তাঁর মাথায় গুলি লাগে। সঙ্গে সঙ্গে বাইক থেকে পড়ে যান তিনি। কিছুক্ষণ পরে স্থানীয় বাসিন্দারা গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

যে দুষ্কৃতী গুলি চালিয়েছিল তাকে মঙ্গলবার সকালেই গ্রেফতার করে পুলিশ। ধরা পড়ে তার পাঁচ সহযোগী। আরও তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা সকলেই বিক্রমের পরিবারের পরিচিত।

গাজিয়াবাদের বিজয় নগর এলাকার এক সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, বিক্রম তাঁর দুই মেয়েকে নিয়ে বাইকে চড়ে আসছেন। হঠাৎ বাইকটি ঘুরিয়ে উল্টো দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে ঘিরে ফেলল কয়েকজন। তারা বাইকটি ধরে টানাহ্যাঁচড়া করতে লাগল। বিক্রমকেও মারধর করতে লাগল। তিনি বাইক থেকে পড়ে গেলেন।

ঠিক কখন গুলি করা হয়েছিল সিসিটিভিতে দেখা যাচ্ছে না। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, বিক্রম মাটিতে পড়ে আছেন। দুষ্কৃতীরা দৌড়ে পালাচ্ছে। এরপরে দেখা যাচ্ছে, সাংবাদিকের বড় মেয়ে দৌড়ে বাবার কাছে এল। সে তখন কাঁদছিল। আশপাশের কয়েকটি গাড়িকে সে দাঁড় করাতে চেষ্টা করল। কয়েকজন আহত ব্যক্তির দিকে দৌড়ে গেলেন।

কিছুদিন আগে বিক্রম যোশী পুলিশে অভিযোগ করেছিলেন, তাঁর ভাইঝিকে কয়েকজন বিরক্ত করছে। পুলিশের ধারণা, তারাই বিক্রমকে মারতে চেয়েছিল। কর্তব্যে অবহেলার জন্য দুই পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More