লাইভ: ভোটের ফল ঘোষণা হবে ২ মে: নির্বাচন কমিশন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পশ্চিমবঙ্গ সহ চার রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল পুডুচেরির বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে মে মাসে। তার আগে এই চার রাজ্য ও পুডুচেরিতে বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করবেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা। দেখুন তার লাইভ ও লাইভ হাইলাইটস।

নয়াদিল্লির বিজ্ঞান মঞ্চে ঠিক বিকেল সাড়ে চারটেয় প্রেস কনফারেন্স শুরু করেছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সহ কমিশনের ফুল বেঞ্চ। তবে পশ্চিমবঙ্গের ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হয়তো সব থেকে শেষে হবে। কারণ, অ্যালফেবেটিকালি শুরু করলে আগে অসমের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হবে। তার পর কেরল, পুডুচেরি, তামিলনাড়ুর নির্ঘণ্ট ঘোষণা হবে। সব শেষে ঘোষণা হতে পারে পশ্চিমবঙ্গের নির্ঘণ্ট।

  • কোভিডের মধ্যে বিহারে ভোট করানো নির্বাচন কমিশনের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। এক প্রকার ওয়াটার শেড মোমেন্ট। রাজ্য সরকারের আমলা, পুলিশ কর্তারা ঝুঁকি নিয়ে সাহস দেখিয়ে সেই ভোট করিয়েছেন।
  • বিহারে ভোট পড়েছিল ৫৭ শতাংশ। যা আগের দুই ভোটের থেকে বেশি। বিশেষ করে মহিলা ভোটাররা বিপুল সংখ্যায় ভোট দিয়েছিলেন।
  • ভোটে বাহিনী মোতায়েন নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সঙ্গে কয়েক দফায় বৈঠক হয়েছে। বাহিনীর পরিবহণের জন্য রেলের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।
  • অসমে বিধানসভা ভোটের মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৩১ মে। মোট বিধানসভা আসন ১২৬। তামিলনাড়ুর বিধানসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২৪ মে। পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভার মেয়াদ শেষ হবে ৩০ মে। কেরলে ১ জুন এবং পুদুচেরিতে ৮ জুন বিধানসভার মেয়াদ শেষ হবে।
  • মোট ৮২৪ টি বিধানসভা আসনে ভোট নেওয়া হবে। ১৮ কোটির বেশি মানুষ ভোট দেবেন।
  • প্রতি বুথে ১০০০ জন ভোট দিতে পারবেন। সব পোলিং বাধ্যতামূলক ভাবে বুথ গ্রাউন্ড ফ্লোরে থাকবে।
  • পশ্চিমবঙ্গে ৭৭৪১৩ টি পোলিং বুথ ছিল। তা ৩১.৬৫ শতাংশ বেড়ে ১,০১,৯১৬ হয়েছে।
  • কোভিড সংক্রান্ত গাইডলাইন ইতিমধ্যেই রাজ্যগুলিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের সঙ্গে পরামর্শ করেই তা করা হয়েছে। স্থানীয় পরিস্থিতি অনুযায়ী রাজ্যগুলি তা প্রয়োজনমতো সামান্য পরিবর্তন করতে পারে।
  • কারও বয়স ৮০ বছরের বেশি হলে তিনি চাইলে পোস্টাল ব্যালটে ভোট দিতে পারবেন।
  • ভোটের সময়ও ১ ঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে। কোভিডের কারণেই তা করা হয়েছে। কারণ, ধরে নেওয়া হচ্ছে যে কোভিডের কারণে ভোট গ্রহণে অতিরিক্ত সময় লাগবে।
  • অনলাইনে নোমিনেশন ও এফিডেভিট পেশ করা যেতে পারে। জমানতও অনলাইনে জমা করা যাবে।
  • অনলাইনে নোমিনেশন ও এফিডেভিট পেশ করা যেতে পারে। জমানতও অনলাইনে জমা করা যাবে।
  • সব স্পর্শকাতর বুথ চিহ্নিত করা হয়েছে। সেখানে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয় সব রাজ্যেই আগাম বাহিনী পাঠানো হয়েছে। বাহিনী মোতায়েনের দায়িত্ব থাকবে স্পেশাল পুলিশ অবজার্ভার ও জেনারেল অবজার্ভারের উপর।
  • রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে স্পেশাল অবজার্ভার ও এক্সপেন্ডিচার অবজার্ভার নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
  • পশ্চিমবঙ্গে স্পেশাল অবজার্ভার হবেন অজয় নায়েক। ৮৪ ব্যাচের আইএএস অফিসার তিনি। তিনি বিহারে মুখ্য নির্বাচন অফিসার ছিলেন। পশ্চিমবঙ্গে আইপিএস অবজার্ভার থাকবেন বিবেক দুবে।
  • পশ্চিমবঙ্গে দু’জন আইপিএস অবজার্ভার থাকবেন। প্রথম জন বিবেক দুবে। অন্ধ্রপ্রদেশ ক্যাডারের ৮১ ব্যাচের এই আইপিএস অফিসার লোকসভা ভোটে পশ্চিমবঙ্গে পুলিশ অবজার্ভার ছিলেন। সেই সঙ্গে থাকবেন মৃণাল কান্তি দাস। তিনি মণিপুর ক্যাডারের ৭৭ ব্যাচের আইপিএস অফিসার ছিলেন।
  • পশ্চিমবঙ্গে এক্সপেন্ডিচার অবজার্ভার হিসাবে নিয়োগ করা হবে বি মুরলীকুমারকে।
  • কেরলে এক দফায় ভোট গ্রহণ হবে ৬ এপ্রিল।
  • তামিলনাড়ুতেও ভোট ঘোষণা হবে এক দফায়। ৬ এপ্রিল হবে ভোট গ্রহণ।
  • পুদুচেরিতেও এক দফায় ৬ এপ্রিল ভোট গ্রহণ হবে।
  • পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোট গ্রহণ হবে। প্রথম দফায় ৩০ টি বিধানসভায় ভোট গ্রহণ হবে। প্রথম দফায় ভোট হবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর পার্ট-১, পূর্ব মেদিনীপুর পার্ট-১।
  • দ্বিতীয় দফায় ভোট হবে ১ এপ্রিল। দ্বিতীয় দফায় ভোট হবে বাঁকুড়া পার্ট টু, দুই মেদিনীপুর পার্ট ২, দক্ষিণ ২৪ পরগণা পার্ট ১।
  • তৃতীয় দফায় ৩১ টি বিধানসভায় ভোট গ্রহণ হবে ৬ এপ্রিল।
  • চতুর্থ দফায় ৪৪ টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হবে ১০ এপ্রিল।
  • ষষ্ঠ দফায় ভোট হবে ৪৩ টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট হবে ২২ এপ্রিল।
  • সপ্তম দফায় ৩৬ টি আসনে ভোট গ্রহণ হবে ২৬ এপ্রিল।
  • অষ্টম দফায় ২৯ এপ্রিল ভোট গ্রহণ হবে বাকি ৩৫ টি আসনে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More