প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির বাড়িতে সকাল থেকে জল নেই, পাইপ ভেঙে দিয়েছে বাঁদরেরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত কয়েক দিন ধরেই দিল্লিতে প্রবল ঠান্ডা পড়েছে। তবে এতটাও নয় যে বরফ জমে জলের পাইপ ফেটে যাবে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। কিন্তু এরই মধ্যে সকাল থেকে নাকি জল নেই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সরকারি বাসভবনে।

কেন নেই!

প্রণব কন্যা তথা দিল্লির মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, জল নেই, কারণ বাঁদররা জলের পাইপই ভেঙে দিয়েছে। এমনই তাদের দৌরাত্ম্য! তাঁর কথায়, রোজই কিছু না কিছু অনিষ্ট করেই চলেছে শাখামৃগরা। জামা কাপড় শুকোতে দিলে দাঁত দিয়ে ছিঁড়ে দিয়ে যাচ্ছে। ফুলের টব ভেঙে দিচ্ছে। উৎপাতে টেকা দায়।

এহেন কথা বললে দিল্লির পশুপ্রেমীরা চটে যেতে পারেন। তাই শর্মিষ্ঠাও হয়তো সতর্ক। বলেছেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে পশুপ্রেমী। ওদের আঘাত না করে একটা পথ যদি কেউ বাতলে দেয় তা হলে ভাল হয়।

ঘটনা হল, লুটিয়েন দিল্লিতে বাঁদরের উৎপাত নতুন নয়। রাইসিনা হিলের অদূরে ১০ নম্বর রাজাজি মার্গে প্রণববাবুর সরকারি বাসভবন। ওই অঞ্চলটায় বাঁদরকুলের আধিপত্য বহুদিনের। সেই কারণেই সরকারি ভাবে হনুমান ভাড়া করে মাঝে মধ্যে বাঁদর তাড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়।

অতীতে একবার প্রণববাবুই বাঁদরদের পুনর্বাসনের কথা ভেবেছিলেন। তিনি তখন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। সাউথ ব্লকে তাঁর মন্ত্রক। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্তাদের ডেকে বলেছিলেন, দিল্লিতে যত মাস্টারপ্ল্যান গ্রিন এরিয়া রয়েছে সেখানে প্রচুর ফলের গাছ লাগাতে। কারণ, বাঁদররা খাবারের খোঁজেই লুটিয়েন দিল্লিতে ঘুরঘুর করে। মানুষের উচ্ছিষ্ট খেয়ে বেঁচে থাকে। ফলের গাছ লাগালে সেখানে তারা মহানন্দে থাকবে। এদিকেও উৎপাত কমবে। কিন্তু সেই প্রকল্প বাস্তবায়নের আগেই প্রণববাবুকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে সরিয়ে বিদেশ মন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তখন প্রতিরক্ষামন্ত্রী হন এ কে অ্যান্টনি। অ্যান্টনিকে ডেকেও একবার প্রণববাবু এই পরামর্শ দিয়েছিলেন। তবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকে অ্যান্টনি জমানায় কুটোটা নড়েছে এমন বদনাম কেউ দিতে পারেনি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More