হাথরসে নির্যাতিতার বাবাকে গুলি করে খুন, জেল থেকে বেরিয়েই বদলা নিল যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ছিল। তিন বছর জেল খেটে বেরিয়েই ভয়ঙ্কর বদলা নিল অপরাধী। গুলি করে খুন করল নির্যাতিতা তরুণীর বাবাকে। উত্তরপ্রদেশের হাথরসে একের পর এক ধর্ষণ, যৌন নির্যাতনের ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছে দেশবাসীকে। ফের এমন ঘটনা সামনে আসায় ঘুম উড়েছে প্রশাসনের।

হাথরসের এক তরুণীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল গ্রামেরই এক তরুণের বিরুদ্ধে। নাম গৌরব শর্মা। সেটা ২০১৮ সাল। এই ঘটনা নিয়ে সে সময় তোলপাড় হয় হাথরসে। পুলিশ গ্রেফতার করে গৌরবকে। আদালতে তোলা হয়। বিচারে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয় গৌরবকে। পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল জেলা আদালতে জামিন পায় গৌরব। তারপরেই সটান চলে যায় নির্যাতিতার বাড়িতে।

মেয়েটির পরিবার জানিয়েছে, সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টে নাগাদ দলবল নিয়ে তাঁদের বাড়িতে চড়াও হয় গৌরব। পরিবারের সকলকে হুমকি দিতে থাকে। মেয়েটির বাবা বেরিয়ে আসেন। তাঁর সঙ্গে ঝামেলা শুরু হয়। কথা কাটাকাটির মাঝে পিস্তল বের করে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে গৌরব। গুলিবিদ্ধ হন নির্যাতিতা তরুণীর বাবা। রক্তাক্ত লুটিয়ে পড়েন। পালিয়ে যায় গৌরব।

স্থানীয়রাই উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান মেয়েটির বাবাকে। কিন্তু পথেই মৃত্যু হয় তাঁর। হাথসের পুলিশ প্রধান বিনীত জয়সওয়াল বলেছেন, ঘটনার পর থেকেই গৌরব শর্মা নিখোঁজ। তার পরিবারের একজনকে আটক করা হয়েছে। গৌরব ও তার পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন নির্যাতিতা তরুণী।

হাথরসে দলিত তরুণীর ধর্ষণের ঘটনার তদন্ত চলছে এখনও। ঘটনার তদন্তভার রয়েছে সিবিআইয়ের হাতে। গত ১৪ সেপ্টেম্বর উত্তরপ্রদেশের হাথরসে ২০ বছরের এক দলিত তরুণীকে গণধর্ষণ করে খুন করার অভিযোগ ওঠে চার উচ্চবর্ণের যুবকের বিরুদ্ধে। বেশ কিছুদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পরে দিল্লির এক হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। কিন্তু তারপরে দেহ পরিবারের হাতে না তুলে দিয়ে জোর করে রাতের অন্ধকারে সেই দেহ পুড়িয়ে দেয় পুলিশ। তারপরেই শুরু হয় বিক্ষোভ। অবশ্য যোগীরাজ্যের পুলিশ দাবি করে পরিবারের ইচ্ছা মেনেই দেহ পোড়ানো হয়েছে।  হাথরসের বছর কুড়ির দলিত তরুণীকে গণধর্ষণের পরে খুন করা হয়েছিল, তদন্তে উঠে এসেছে এমনই তথ্য। গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে এই ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ হয়েছিল। সেই চারজনের বিরুদ্ধেই চার্জশিট পেশ করেছে সিবিআই। শুধু গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগই নয়, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তফসিলি জাতি/উপজাতি (প্রিভেনশন অফ অথরিটিস) আইনের আওতায় মামলা দায়ের করেছে সিবিআই।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More