রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল দিল্লি বিল, ‘গণতন্ত্রের কালো দিন’, বললেন কেজরিওয়াল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তীব্র বিরোধিতা, হই-হট্টগোলের মধ্যে গভীর রাতে রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল বহু চর্চিত দিল্লির প্রশাসনিক ক্ষমতা সংক্রান্ত বিলটি। এই বিল আগে লোকসভায় পাশ হয়। তারপরেও বিলের বিরোধিতায় গলা চড়াতে শুরু করে বিরোধী দলগুলি। দিল্লির প্রশাসনিক ক্ষমতা কার হাতে থাকবে, নির্বাচিত সরকার নাকি উপরাজ্যপাল (লেফটেন্যান্ট গভর্নর) সে নিয়ে বিস্তর টানাপড়েন শুরু হয়। শেষ পর্যন্ত ভোটাভুটিতে রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেছে জিএনসিটিডি বিল। এই বিল পাশের ফলে দিল্লির সমস্ত প্রশাসনিক ক্ষমতা তুলে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি উপরাজ্যপালের হাতে। আর তাই নিয়েই বেজায় চটেছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। টুইটে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের কালো দিন শুরু হয়ে গেছে।’

কেজরিওয়াল বলেছেন, দিল্লির ভোটের পরে বিজেপি দুবার হেরেছে। এখন শাসন ক্ষমতা নিজেদের হাতে রাখতে বিল পাশ করেছে। তাঁর অভিযোগ, নির্বাচিত সরকারের ক্ষমতা খর্ব করে তাকে ঠুঁটো করে রাখতে চাইছে কেন্দ্র। এইভাবে দেশের গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা ও সংবিধানের ওপরেও আঘাত হানা হচ্ছে। টুইট করে কেজরিওয়াল বলেছেন, “ভারতীয় গণতন্ত্রের দুঃখের দিন শুরু হয়েছে। আমরা হার মানব না, লড়াই থামাব না। মানুষের ক্ষমতা যাতে মানুষের হাতেই থাকে সে নিয়ে লড়াই চলবে। যতই বাধা আসুক, আমরা থামব না।”

দিল্লির ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে টানাপড়েন দীর্ঘদিনের। সম্প্রতি ‘দ্য গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল ক্যাপিটাল টেরিটোরি অব দিল্লি বিল’লোকসভায় পাশ হওয়ার পরে ঝামেলা আরও বাড়ে। এই বিলে বলা হয়, যে কোনও প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা থাকবে উপরাজ্যপালের হাতে। তাঁর সিদ্ধান্তকেই সরকারি সিদ্ধান্ত বলে মেনে নেওয়া হবে। নতুন আইন পাশ করতে গেলেও উপরাজ্যপালের সম্মতির দরকার পড়বে। এমনকি নির্বাচিত সরকারকেও উপরাজ্যপালের কথামতোই চলতে হবে। লোকসভায় এই বিল পাশের পরেই কেজরিওয়াল প্রশ্ন তোলেন, সব ক্ষমতা উপরাজ্যপালের হাতে থাকলে নির্বাচিত সরকারের আর কোনও ভূমিকা থাকবে না। দিল্লির শাসনব্যবস্থা পুরোপুরি কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে চলে যাবে। দিল্লি বিল নিয়ে কেজরিওয়ালের সমর্থনে দাঁড়িয়েছে বিজেপি বিরোধী দলগুলি। কেজরিওয়ালের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে চিঠি লিখেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More