নালার ধারে ঝোঁপে আটকে কুকুর, জলের তোড় সামলে উদ্ধার তেলেঙ্গানার পুলিশকর্মীর

দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ হঠাৎ প্রবল বৃষ্টিতে জলে ভরে গিয়েছে নালা। বেড়ে গিয়েছে জলের স্রোতও। আর তার মধ্যেই নালার ধারে একটা ঝোঁপের মধ্যে আটকে গিয়েছে একটি কুকুর। কোনও ভাবে সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না সে। এমন অবস্থায় এগিয়ে এলেন এক পুলিশকর্মী। জলের তোর সামলে একটা জেসিবি মেশিনের সাহায্য নিয়ে উদ্ধার করলেন কুকুরটিকে।

ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার নাগারকুর্নুল পুলিশ স্টেশন এলাকায়। এলাকার সার্কেল ইন্সপেক্টর গান্ধী নায়েক জানিয়েছেন, গত কয়েক দিন ধরে ওই এলাকায় ভারী বৃষ্টি হওয়ায় আশেপাশের ছোটখাটো নালাও জলে ভরে উঠেছে। এই সময় বেশি বৃষ্টি হওয়ার জন্য এলাকার বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ আধিকারিকদের টহল দেওয়ার জন্য পাঠানো হয়।

সেই নির্দেশ অনুযায়ী বুধবার টহলদারী চালাচ্ছিলেন মুজিব নামের এক হোমগার্ড। হঠাৎই তিনি দেখতে পান, পাশের একটি ছোট নালার পারে ঝোঁপের মধ্যে আটকে পড়েছে একটি কুকুর। কোনও ভাবেই নড়াচড়া করতে পারছে না সে। মুজিব বুঝতে পারেন জলের তোড়ে ভেসে যাওয়ার সময়ই হয়তো ওই ঝোঁপে কোনও ভাবে আটকে পড়েছে কুকুরটি।

সঙ্গে সঙ্গে তিনি ঠিক করেন, কুকুরটিকে উদ্ধার করবেন। তাই একটি জেসিবি মেশিন আনতে বলেন সেখানে। তারপর সেই জেসিবি মেশিনের সাহায্যে কুকুরটির কাছে তিনি পৌঁছন। তারপরে কোনওরকমে ঝোঁপ থেকে কুকুরটিকে বের করে আনেন। তারপর জেসিবি মেশিনে করেই পারে ওঠেন তিনি। ঝোঁপে আটকে পরে কুকুরটিকে ভয় পেয়ে গিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। তারপর কিছুটা শুশ্রূষা করে ছেড়ে দেওয়া হয় তাকে।

সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গান্ধী নায়েক জানিয়েছেন, “নাগারকুর্নুল থানা এলাকার কাছে একটি জলাধার রয়েছে। বেশি বৃষ্টি হলে সেই জলাধার উপচে জল চলে আসে। তাই ছোট নালাগুলিও ভরে যায়। তাই আমরা জরুরি পরিষেবার জন্য পুলিশকর্মীদের টহল বাড়িয়ে দিই। এরকমই টহল দেওয়ার সময় মুজিব নামের এক হোমগার্ড নালার ধারে ঝোঁপে একটি কুকুরকে আটকে থাকতে দেখেন। তিনি একটি জেসিবি মেশিন সেখানে নিয়ে এসে কুকুরটিকে উদ্ধার করেন।”

কুকুরটিকে উদ্ধারের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়। মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওতে দেখা যায় বাকিরা নালার ধারে দাঁড়িয়ে মুজিবকে ক্রমাগত উৎসাহ দিয়েছেন। সবাই ওই হোমগার্ড ও তার সঙ্গীদের প্রশংসা করেছেন। এভাবে নিজের প্রাণ বিপন্ন করে যেভাবে মুজিব একটা অবলা প্রাণীকে বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন তার প্রশংসা করছেন সবাই।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More