করোনা প্রতিরোধে সার্ক বৈঠকে সুফল মিলবে, আশা মোদীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়েছে সাউথ এশিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর রিজিওনাল কো-অপারেশন ( সার্ক ) ভুক্ত দেশগুলোর উপরেও। এই পরিস্থিতিতে সব দেশগুলির মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক বৈঠকের ডাক দিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সব দেশই রাজি হয়েছে সেই বৈঠকে। রবিবার বিকেল ৫টায় হবে এই বৈঠক। এই বৈঠকে সুফল মিলবে, এমনটাই আশা মোদীর।

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া এই মহামারী রুখতে সার্ক-ভুক্ত সব দেশ যে একসাথে হাত মেলাচ্ছে তাতে খুশি মোদী। শনিবার রাতে তিনি টুইট করে বলেন, “রোগমুক্ত বিশ্ব গড়ে তোলার পথে ঠিক সময় মতো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আগামীকাল ( রবিবার ) বিকেল ৫টায় সার্ক-ভুক্ত দেশগুলির প্রধানরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠক করবেন। এই করোনা ভাইরাসকে প্রতিরোধ করার একটা রূপরেখা তৈরি হবে। আমি আত্মবিশ্বাসী যে আমাদের এই একসঙ্গে আসা নিশ্চয় একটা পথ বের করবে যা আমাদের নাগরিকদের জন্য উপকারী হবে।”

শুক্রবার সার্ক-ভুক্ত দেশগুলির কাছে একটি আবেদন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইট করে তিনি বলেন, “আমি সার্ক-ভুক্ত সব দেশের নেতৃত্বের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, করোনা ভাইরাস মোকাবিলার জন্য একটা পরিকল্পনা তৈরি করতে। আমরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা করতে পারি। কী ভাবে আমাদের নাগরিকদের সুস্থ রাখতে হবে তার আলোচনা করতে হবে আমাদের।

শনিবার সকালে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দফতরের তরফে টুইট করে জানানো হয়, “করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক মোকাবিলায় গ্লোবাল ও রিজিওনাল স্তরে একসঙ্গে মোকাবিলা করা প্রয়োজন। আমরা ইমরান খানের বিশেষ সহযোগী ( স্বাস্থ্য )-র সঙ্গে কথা বলেছি। সার্ক ভুক্ত দেশগুলির মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যে আলোচনা এখানে অংশ নেবেন তিনি।”

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শিরিং জানিয়েছেন, “সার্কের সদস্য হিসেবে আমাদের এই ক্ষেত্রে একসঙ্গে কাজ করা উচিত। ছোট দেশগুলি এই ভাইরাসে অনেক বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাই আমাদের একসঙ্গে এর মোকাবিলা করা উচিত।”

অন্যদিকে শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপক্ষ বলেন, “এই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়ায় নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ। আমরা এই আলোচনায় যোগ দিতে তৈরি। সবাইকে মিলেই এই ভাইরাসের মোকাবিলা করতে হবে আমাদের।”

সার্ক-ভুক্ত দেশগুলি হল ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, মলদ্বীপ, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা। করোনা ভাইরাসে এই মুহূর্তে ভারতে আক্রান্ত ৮৩ জন। কর্ণাটক ও দিল্লিতে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। পাকিস্তানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ২০ জন। সার্ক-ভুক্ত দেশগুলিতে এই আক্রান্তের সংখ্যা ১২৬। এই পরিস্থিতিতে সব দেশগুলি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More