ছাদে উঠে দেখেন দুই ব্যাগ ভর্তি টাকা আর সোনার গয়না, ঘাবড়ে গিয়ে ফোন পুলিশকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সকাল বেলা ছাদে উঠেই প্রায় ভিরমি খাচ্ছিলেন বাড়ির কর্তা। ছাদে বড় বড় দুই ব্যাগে ঠাসা টাকা আর গয়না। ঠিক যেন জ্যাকপট পাওয়ার মতো। এত টাকা কীভাবে এল ভাবতে ভাবতেই কর্তার টনক নড়ে। দিনকয়েক আগেই চুরি হয়েছে প্রতিবেশীর বাড়িতে। হতে পারে চোর আর টাকা নিয়ে পিঠটান দিতে পারেনি। তাঁর বাড়ির ছাদেই গচ্ছিত রেখে গা ঢাকা দিয়েছে।

ঘটনা মেরঠের। সকাল বেলা চোখের সামনে আচমকা বিপুল ধনসম্পদ দেখে ঘাবড়ে গেলেও সম্বিত হারাননি বাড়ির কর্তা বরুণ শর্মা। বরং মাথা ঠান্ডা রেখে সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশে ফোন করে গোটা বিষয়টা জানান তিনি। খবর পেয়ে পুলিশও চলে আসে দ্রুত।

গয়না বাদে শুধু নগদ টাকাই ছিল ১৪ লাখের কাছাকাছি। জানিয়েছেন সদর থানার ইনচার্জ দীনেশ বাঘেল। গয়না মিলিয়ে ধরা হলে তা প্রায় ৪০ লাখের কাছাকাছিই হবে, এমনটাই অনুমান। যদিও গয়না ওজন করে দাম খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, এলাকার ধনী ব্যবসায়ী পবন সিঙ্ঘালের বাড়িতে দিনকয়েক আগেই বড়সড় চুরি হয়ে গিয়েছে। ব্যবসায়ী অভিযোগ করেছিলেন টাকাপয়সা ও গয়না মিলিয়ে প্রায় ৪০ লাখ টাকার সম্পত্তি খোয়া গিয়েছে তাঁর। পুলিশের অনুমান, সেই টাকা আর গয়নাই পাওয়া গিয়েছে ওই ব্যবসায়ীর প্রতিবেশী বরুণ শর্মার বাড়ির ছাদে।

“সকালে ছাদে উঠে দেখি দুই ব্যাগ ভর্তি টাকা আর গয়না। চমকে গেলেও পরে প্রতিবেশীর বাড়িতে চুরির ঘটনা মনে পড়ে যায়। তাই সময় নষ্ট না করে পুলিশে খবর দিই আমি,” বলেছেন বরুণ শর্মা। পুলিশের দাবি, এই চুরির সঙ্গে জড়িত রয়েছে ব্যবসায়ীর বাড়ির প্রাক্তন পরিচারক রাজু নেপালি। বছর দুয়েক সে কাজ করেছিল ব্যবসায়ীর বাড়িতে। পরে চলে যায়। মনে করা হচ্ছে এর মধ্যে সে আবার ফিরে এসেছিল। বাড়ির রক্ষীরা তাকে চিনত, তাই ঢুকতে বাধা দেয়নি। এই ঘটনায় ব্যবসায়ীর বাড়ির এক গার্ডকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাকে জেরা করে জানা গিয়েছে, লুটের টাকার বখরা তাকেও দেওয়া হয়েছে। যদিও রাজু নেপালিকে এখনও ধরতে পারেনি পুলিশ।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More