শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

ইডি অফিসে হাজিরা রবার্টের, গেট অবধি ছেড়ে দিয়ে এলেন পত্নী প্রিয়ঙ্কা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিদেশে অবৈধ সম্পত্তি ও বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে তাঁকে তলব করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বুধবার দিল্লির ইডি অফিসে গিয়ে হাজিরা দিলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢড়ার স্বামী রবার্ট বঢড়া। সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী প্রিয়ঙ্কাও।

বুধবার দুপুরে নিজের আইনজীবীদের সঙ্গে নিয়ে ইডি অফিসে গিয়ে পৌঁছন রবার্ট। প্রিয়ঙ্কা তাঁকে ইডি অফিসের গেট পর্যন্ত ছেড়ে দিয়ে আসেন। আইনজীবীদের অন্য ঘরে বসিয়ে রবার্টকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অন্য ঘরে বসানো হয়। ইডি সূত্রে খবর, রবার্টের জন্য ৩৬টি প্রশ্ন তৈরি করেছেন ইডি আধিকারিকরা। মূলত আর্থিক লেনদেন ও লন্ডনে বেশ কিছু জমি কেনার ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে এই শিল্পপতিকে। তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

বিদেশে প্রায় ১৮ কোটি টাকার বেনামি সম্পত্তি ও বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ রয়েছে সনিয়া গান্ধীর জামাইয়ের নামে। গত সপ্তাহেই দিল্লি কোর্ট এই শিল্পপতিকে ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্তি দিয়েছে। সেইসঙ্গে তাঁকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তদন্তের কাজে সহযোগিতা করার জন্য।

এই প্রথম কোনও তদন্তকারী সংস্থার সামনে হাজিরা দিচ্ছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর জামাইবাবু। এর আগে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সমস্তা অভিযোগ বারবার অস্বীকার করেছেন রবার্ট। তিনি দাবি করেছেন, রাজনৈতিক অভিসন্ধির জন্যই তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

তবে আদালতে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বারবার অভিযোগ করেছে, রবার্টের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ আছে। তার মধ্যে একটি হলো লন্ডনে বে-নামে ছটি ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ। গত বছর ৭ ডিসেম্বর, দিল্লি ও বেঙ্গালুরুর একাধিক জায়গায় অভিযান চালিয়েছে ইডি। তার মধ্যে একটি ছিল দিল্লির সুখদেব বিহার এলাকায় রবার্ট বঢড়ার অফিসও।

আরও পড়ুন

যানজট কমাতে শহরে জোড়া উড়ালপুল তৈরির পরিকল্পনা রাজ্য সরকারের

Shares

Comments are closed.