লাদাখ সীমান্ত থেকে চিন সেনা না সরালে আমরাও সরাব না, কড়া হুঁশিয়ারি রাজনাথের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর এখনও সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চিন। তার জন্য সীমান্তের এপারে সেনা বাড়িয়েছে ভারতও। যতদিন না চিন সেনা সরাচ্ছে, ততদিন ভারতও সেনা সরাবে না বলেই স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। সীমান্ত এলাকায় খুব দ্রুত গতিতে ভারত একাধিক পরিকাঠামো তৈরি করছে বলেও জানিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। ইতিমধ্যেই সেই পরিকাঠামো নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে চিন।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাজনাথ সিং জানিয়েছেন, “সেনার সংখ্যা কমানো হবে না। যতদিন না চিন নিজেদের সেনা সরানোর উদ্যোগ নিচ্ছে ততদিন ভারতও সীমান্ত থেকে সেনা সরাবে না।”

অবশ্য আলোচনার মাধ্যমেও এই সমস্যার সামাধান করা সম্ভব, এমনটা মনে করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, “এই ধরনের সমস্যার সমাধান কবে হবে তার কোনও ডেডলাইন থাকে না। আপনি একটা নির্দিষ্ট তারিখ ঠিক করতে পারেন না। কিন্তু আমরা আত্মবিশ্বাসী যে আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান বেরবে।”

সম্প্রতি খবর পাওয়া গিয়েছে অরুণাচল প্রদেশে একটি গ্রাম বানিয়েছে চিন। এই প্রসঙ্গে রাজনাথ সিং বলেন সীমান্ত এলাকায় রয়েছে এই গ্রাম। বেশ কিছু বছর ধরে এই ধরনের পরিকাঠামো হচ্ছে বলেও জানান তিনি। রাজনাথ বলেন, “আমাদের বাহিনী ও স্থানীয় মানুষের কথা ভেবে ভারতও নিজেদের সীমান্তে খুব দ্রুত গতিতে পরিকাঠামো তৈরি করছে। আমরা খুব দ্রুত এই কাজ করছি।”

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানিয়েছেন, চিন ভারতের বিশ্বাস ভেঙেছে। গত চার দশকে দু’দেশের মধ্যেকার সম্পর্ক সবথেকে খারাপ জায়গায় পৌঁছেছে। এই প্রসঙ্গে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, “অবশ্যই ওরা আমাদের বিশ্বাস ভেঙেছে। ১৯ জানুয়ারি বৈঠকের কথা ছিল। ওরা আগের দিন জানাল হবে না। তাই আমরা জানিয়েছি ২৩ বা ২৪ জানুয়ারি বৈঠকের দিন ঠিক করা হোক। ভারত সবসময় আলাপ আলোচনায় বিশ্বাসী।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More