দিদি মোদীকে চিঠি লিখেছিলেন গুজরাতি ভাষায়, খাম পাওয়ার খুশির গল্প শোনালেন প্রধানমন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অক্ষয় কুমারকে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বছরে কয়েকবার উপহার পাঠান। মিষ্টি, কুর্তা ইত্যাদি থাকে সেই উপহারের পসরায়। মঙ্গলবার হাওড়ার সভায় নরেন্দ্র মোদী জানালেন দিদি ও তাঁর মধ্যে চিঠি দেওয়া নেওয়ার কথা।

ডুমুরজলার সভা থেকে মোদী বলেন, “বাংলার জনগণ, আপনাদের একটা কথা বলি। এটা ভোটের কথা নয়। এমনি অন্য একটা ঘটনা।” গোটা মাঠ তখন মোদীর দিকে তাকিয়ে। কী বলবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর মোদী গল্প বলতে শুরু করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সাংসদদ ও বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের জন্মদিনে আমার দফতর থেকে সবাইকে চিঠি লিখি। সবাইকে তাঁদের মাতৃ ভাষায় চিঠি লিখি। আমি এই পরম্পরা শুরু করেছি। আমি সব ভাষা জানি না। কিন্তু সব ভাষাকে সম্মান করি। দিদিকে আমি বাংলায় চিঠি লিখেছিলাম। আমার খুবই ভাল লেগেছিল, উনি গুজরাতি ভাষায় জবাব দিয়েছিলেন।”

এখানেই থামেননি প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “এই বৈচিত্র্যই তো ভারতের ঐতিহ্য। আমি কেরলে গেলে চেষ্টা করি মালায়লি বলতে। অনেক সময় উচ্চারণে সমসস্যা হয়। আমি জানি বাংলা উচ্চারণে আমার সমস্যা আছে। কিন্তু আমি তো সম্মান করি সমস্ত ভাষাকে।”

এই গল্পের অবতারণা কেন তা বোঝা গেল এরপর। মোদী বলেন, “দিদি… ও দিদি… এটাকে তো উৎসাহ দেওয়া উচিত। দিদি তা নিয়েও সমালোচনা করছেন।”

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর বাংলা উচ্চারণ নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছেন মমতা। বলেছেন, সোনার বাংলা বলতে পারে না। বলছে সুনার বাংলা করব। বাংলা বলতে পারে না আবার বাংলা দখল করবে!”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More