ভারতের কোচ হিসেবে শেষটা আর একটু ভাল হতে পারত, এখনও আক্ষেপ রয়েছে কুম্বলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারত তথা বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার তিনি। বিশ্বের সবথেকে বেশি উইকেট টেকারদের তালিকায় তিন নম্বরে রয়েছেন তিনি। ভারতের অধিনায়কত্ব করেছেন। খেলা ছেড়ে দেওয়ার পরে ভারতের কোচও হয়েছেন। কিন্তু এক বছর কোচিং করার পরেই ভারতের কোচের পদ থেকে সরে যেতে হয় অনিল কুম্বলেকে। সেই ঘটনা নিয়েই মুখ খুললেন তিনি। 

সম্প্রতি একটি অনলাইন শোয়ে জিম্বাবোয়ের প্রাক্তন পেসার পমি এম্বাঙ্গোয়ার সঙ্গে কথা বলেন কুম্বলে। সেখানে তিনি বলেন, “আমি জানি, আমার শেষটা আরও একটু ভাল হতে পারত। কিন্তু ঠিক আছে। কোচ হিসেবে আপনি বুঝতে পারেন কখন আপনার সরে যাওয়া উচিত। কোচদেরই সরে যেতে হয়। আমি খুব খুশি, যে এক বছর আমি ভারতীয় দলের কোচ ছিলাম, সেই এক বছরে আমি দলের উপকারে কিছুটা লাগতে পেরেছি।”

কুম্বলে আরও বলেন, “আমি খুব খুশি ছিলাম যে ভারতীয় দলের দায়িত্ব নিয়েছিলাম। ওই এক বছরে আমি অনেক কিছু শিখেছি। ভারতীয় দলের সঙ্গে যে এক বছর আমি কাটিয়েছিলাম, তা খুবই ভাল ছিল। আমার কোনও অভিযোগ নেই। ভারতীয় দলের ড্রেসিং রুমে ফের যেতে পারে, এত ভাল ভাল ক্রিকেটারের সঙ্গে সময় কাটাতে পেরে আমি খুবই গর্বিত।”

২০১৬ সালে ডানকান ফ্লেচার ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে পদত্যাগের পরে কে কোচ হবেন, তা নিয়ে একটা ডামাডোল তৈরি হয়। ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি- সহ বেশ কিছু ক্রিকেটারের পছন্দের তালিকায় ছিলেন দলের প্রাক্তন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর রবি শাস্ত্রী। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট কোচ নির্বাচনের দায়িত্ব দেন তিন সদস্যের বিশেষজ্ঞ কমিটিকে। এই কমিটির সদস্যরা ছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, শচীন তেণ্ডুলকর ও ভিভিএস লক্ষ্মণ।

কোচের পদের জন্য আবেদন করেন শচীন-সৌরভদের এককালের সতীর্থ কুম্বলে। কলকাতায় হয় ইন্টারভিউ। কিন্তু রবি শাস্ত্রী চেয়েছিলেন অনলাইনে সাক্ষাৎকার দিতে। তাতে রাজি হননি সৌরভদের কমিটি। কোচ করা হয় কুম্বলেকে।

যে একবছর কুম্বলে ভারতীয় দলের কোচ ছিলেন, সেই এক বছরে অনেক সাফল্য পায় ভারত। এই সময় ১৭টি টেস্টের মধ্যে মাত্র একটি টেস্টে হারতে হয় বিরাটদের। একদিনের ক্রিকেটেও সাফল্য পান বিরাটরা। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালেও ওঠে ভারত। কিন্তু ফাইনালে গিয়ে হারতে হয় বিরাটদের। তারপরেই ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করেন কুম্বলে।

ভারতের কোচ হওয়ার পর থেকেই বিরাটের সঙ্গে একটা বিবাদ ছিল ১৩২ টেস্টে ৬১৯ উইকেট ও ২৭১ একদিনের ম্যাচে ৩৩৭ উইকেট নেওয়া কুম্বলের। ধীরে ধীরে সেই বিবাদ বাড়তে থাকে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে হারের পর তা চরমে ওঠে। কুম্বলের পদত্যাগের পর কোচ করা হয় রবি শাস্ত্রীকে। এতদিন পরে সেই ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন কুম্বলে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More