বড্ড তাড়াতাড়ি অবসর নিলেন রায়না, চিঠিতে শুভেচ্ছা মোদীর, পাল্টা টুইটে ধন্যবাদ ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটারের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্বাধীনতা দিবসের দিন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি অবসর ঘোষণা করার কিছুক্ষণের মধ্যেই নিজের অবসর ঘোষণা করেন ভারতের বাঁ’হাতি তারকা ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়নাও। ধোনির সঙ্গে সঙ্গে রায়নার অবসরেও হতবাক হন ফ্যানরা। বাঁ’হাতি এই ব্যাটসম্যানকে টুইটারে শুভেচ্ছা জানান তাঁরা। সেই তালিকায় রয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। তিনিও চিঠি লিখে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রায়নাকে। পাল্টা ধন্যবাদ জানিয়েছেন রায়না।

বৃহস্পতিবার নিজের টুইটে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি তাঁকে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর চিঠির কথা তুলে ধরেন। তার কিছুক্ষণ পরেই টুইট করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান রায়নাও। তিনিও টুইটে প্রধানমন্ত্রীর পাঠানো চিঠির কথা তুলে ধরেন। চিঠিতে নরেন্দ্র মোদী মাঠের মধ্যে রায়নার অবদানের প্রশংসা করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, শুধুমাত্র তাঁর ব্যাটিংয়ের জন্য নয়, তাঁর দুরন্ত ফিল্ডিংয়ের জন্যও সবাই তাঁকে মনে রাখবেন।

সেইসঙ্গে ২০১১ সালের বিশ্বকাপ চলাকালীন গুজরাতের আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে বসে রায়নার খেলা দেখার প্রসঙ্গ তুলেছেন মোদী। কোয়ার্টার ফাইনালে মোতেরাতে অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন রায়না। দলের কঠিন সময়ে যুবরাজের সঙ্গে পার্টনারশিপ গড়েন তিনি। সেই ম্যাচ স্টেডিয়ামে বসে দেখেছিলেন তৎকালীন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই কথাই তুলে আনেন তিনি। বলেন, ভারত কোনও দিনও আপনার গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কথা ভুলবে না।

চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী আরও লিখেছেন, রায়না কোনও দিন নিজের ব্যক্তিগত সাফল্যের জন্য খেলেননি। তিনি খেলেছেন দলের ও দেশের সাফল্যের জন্য। গোটা ভারত সেকথা মনে রাখবে। তাঁর এই কৃতিত্বের সঙ্গে রায়নার স্ত্রী ও মেয়ের অবদানের কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে বড্ড তাড়াতাড়ি অবসর নিয়েছেন বলে রায়নাকে জানিয়েছেন মোদী। তাঁর বিশ্বাস ছিল, আরও কিছুদিন খেলতে পারতেন তিনি। রায়নার ভবিষ্যতের জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোদী।

নিজের টুইটে এই চিঠির কথা তুলে ধরে রায়না পাল্টা ধন্যবাদ দিয়ে লেখেন, “যখন আমরা খেলি তখন আমরা নিজের ঘাম ও রক্ত দেশের জন্য দিই। তাই দেশের মানুষের ভালবাসা, বিশেষ করে দেশের প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছার থেকে কোনও বড় পুরস্কার হয় না। নরেন্দ্র মোদীজি, আপনার শুভেচ্ছা ও ভালবাসার জন্য ধন্যবাদ। আমি আন্তরিকভাবে তা গ্রহণ করলাম। জয় হিন্দ।”

একদিনের ক্রিকেটে ৫৬১৫ রান করেছেন রায়না। গড় ৩৫.১৩। স্ট্রাইক রেট ৯৩.৫০। টি ২০ কেরিয়ারে ২৯.১৮ গড় ও ১৩৪.৮৭ স্ট্রাইক রেটে ১৬০৫ রান করেছেন তিনি। টেস্ট অভিষেকে ২০১০ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করলেও ১৮ টেস্টে মাত্র ৭৬৮ রান করেছেন তিনি। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসে ধোনির ডেপুটি হিসেবে খেলতে দেখা যাবে সুরেশ রায়নাকে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More