তেজস্বী সবচেয়ে তরুণ, রবিবাসরীয় ব্রিগেডে ১১ বক্তা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ২০১৯ সালের ১৯ জানুয়ারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা ইউনাইটেড ইন্ডিয়া সমাবেশ মনে পড়ে? ব্রিগেডে দিদির ডাকে সেই মিটিংয়ে বলতে এসেছিলেন আরজেডি নেতা তথা লালুপ্রসাদ যাদবের ছোট ছেলে তেজস্বী যাদব।

রবিবার সেই তেজস্বীই ব্রিগেডে আসছেন। তৃণমূল-বিজেপি বিরোধী বাম-কংগ্রেসের সমাবেশে। শনিবার রাত পর্যন্ত সিপিএম সূত্রে জানা গেছে ব্রিগেডে তেজস্বী ছাড়াও ১০ জন বক্তৃতা করবেন। তাঁদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ।

তেজস্বী ছাড়া আর কারা বক্তৃতা করবেন?

জানা গিয়েছে, সভার সভাপতি হিসেবে প্রথম বক্তৃতা করবেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। তারপর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের আব্বাস সিদ্দিকি, সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্য মিশ্র, পলিটব্যুরোর সদস্য মহম্মদ সেলিম, সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, সিপিআই সাধারণ সম্পাদক ডি রাজা, ফরওয়ার্ড ব্লক সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাস, আরএসপির মনোজ ভট্টাচার্য, কংগ্রেস শাসিত ছত্তীশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেশ বাঘেল, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী বক্তৃতা করবেন।

অনেকের মতে তেজস্বী আসায় ধর্মনিরপেক্ষ জোটের বৃত্ত সম্পূর্ণ হবে। বাম-কংগ্রেস মানুষের সামনে তুলে ধরতে পারবে, এই জোটে আব্বাস সিদ্দিকী থেকে তেজস্বী সবাই রয়েছেন। যে তেজস্বী মাটি কামড়ে লড়াই করে বিহারে কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছিল।

তবে সিপিএমের এক নেতা বলেন, সময় পাওয়া গেলে আদিবাসী ও মহিলা মুখ হিসেবে দেবলীনা হেমব্রমও বলতে পারেন। ২০১৯ সালের বাম ব্রিগেডে দেবলীনার দেহাতি বক্তব্য মাঠের সমস্ত হাততালি কুড়িয়েছিল। অনেকের মতে, মমতা তৃণমূল যখন বাংলার মেয়েকে উর্দ্ধে তুলে ধরতে চাইছে, বিজেপি যখন লকেট চট্টোপাধ্যায়, অগ্নিমিত্রা পলদের সামনে আনছে তখন বাম ব্রিগেডে কোনও মহিলা মুখ না থাকলে তা নিয়ে সমালোচনা হবেই।

যদিও তৃণমূলের এক মুখপাত্র শনিবার রাতে বলেন, তেজস্বী কলকাতায় আসছেন বটে। সেটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে নয় তো?

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More