মুকুলের ঘরে ফেরা নিয়ে টিপ্পনি অধীরের, বীজপুর থেকে নাগপুর হয়ে ভবানীপুরে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী বলেছিলেন, ভবানীপুর উপ নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কংগ্রেস প্রার্থী দিতে চায় না। তারপর অনেকেই বলছিলেন, তাহলে কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কট্টরপন্থী হিসেবে পরিচিত অধীর চৌধুরী ভোটের পর কিছুটা নরম?

মুকুল রায়ের ঘরে ফেরা নিয়ে চড়া দাগে কটাক্ষ করলেন বহরমপুরের সাংসদ। লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা বলেন, “মুকুল রায় প্রথমে ছিলেন বীজপুরে। তার পর গেলেন নাগপুরে। সেখান থেকে ঘুরে এখন ভবানীপুরে। দিদিকে উত্‍খাত করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে দল ছেড়েছিলেন। আবার সেই দিদির কাছেই ফিরলেন।’’

তিনি আরও বলেন,”মুকুল রায় যে তৃণমূলে ফিরবেন তাঁর ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে মুকুল রায় বিজেপিকে সঙ্গে নিয়ে বাংলা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উৎখাত করার স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি আজ ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূল ভবনে গিয়ে দিদির কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন।”

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোন ইঙ্গিতের কথা বোঝাতে চেয়েছেন অধীর?

নন্দীগ্রামের শেষ প্রচারের দিন তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেছিলেন মমতা। হাসতে হাসতে দিদি বলেছিলেন, “মুকুল কিন্তু শুভেন্দুর মতো অত খারাপ নয়।বেচারাকে সেই কৃষ্ণনগরে দাঁড় করিয়েছে। ব্যারাকপুর, নৈহাটি ওঁর নিজের এলাকা। সেখানে দিতে পারত……!” একদা সেকেন্ড ইন কমান্ডের সম্পর্কে যেন সহানুভুতি ঝরে পড়েছিল দিদির গলা থেকে।

এদিন সেসব নিয়েই কটাক্ষ করেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। তবে অধীরবাবু এও বলেছেন, “কংগ্রেস নিজের কাজ করে যাবে। বিজেপি-র সঙ্গে কংগ্রেসের লড়াই নতুন নয়, বহু পুরনো। সেই লড়াই ছিল, আছে এবং থাকবে। মতাদর্শগত কারণেই সেই লড়াই চলমান। তৃণমূল এবং বিজেপি কর্মীদের দলত্যাগের খেলায় কংগ্রেসে কোনও প্রভাব পড়বে না।’’

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More