সৌরভের বাড়িতে যেতে পারেন অমিত শাহ, মহারাজ এখন বাড়িতেই বিশ্রামে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দাদা যখন বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন তখন বেশ উদ্বিগ্ন দেখিয়েছিল তাঁকে। বারবার ফোন করছিলেন ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়কে। কী ব্যাপার, কেমন আছেন, ইত্যাদি প্রভৃতি। পরিবারের কাছে তাঁর প্রস্তাব ছিল, ‘ওঁর বেটার ট্রিটমেন্ট দরকার। আমি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স পাঠাচ্ছি। ওঁকে দিল্লিতে নিয়ে আসুন। এইমসে চিকিৎসা হবে।”

কিন্তু সেসব আর করতে হয়নি। বুকে স্টেইন বসানোর পর ভাল আছেন মহারাজ। আপাতত বাড়িতে, বিশ্রামে।
সেই তিনিই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানুয়ারির শেষে দু’দিনের বাংলা সফরে আসছেন। সূত্রের খবর, সৌরভকে দেখতে তাঁর বাড়িতে যেতে পারেন শাহ। এমনিতেই অমিত শাহ বাংলায় এসে এখন বিশিষ্টদের বাড়িতে যান। নভেম্বরে কলকাতা সফরের সময় তিনি গিয়েছিলেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীত শিল্পী পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর বাড়িতে। এবার তাঁর ডেস্টিনেশন হতে পারে বেহালার বীরেন রায় রোডের লাল বাড়িটি।

সৌরভকে নিয়ে নানা জল্পনা চলছে। এর মধ্যেই নভেম্বরে অমিত শাহের সফরে তাঁকে নিউটাউনের হোটেলে প্রশ্ন করা হয়েছিল, বাংলায় তো মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে দু’জনের নাম শোনা যাচ্ছে। এক, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং দুই, শুভেন্দু অধিকারী। তো তাঁরা কবে দলে আসছেন?

গুজরাতি নেতাটির জবাব ছিল, “আরে দুটো নামে থামলে হবে? লিস্ট অনেক লম্বা। দেখতে থাকুন!”
এর মধ্যে ১৯ ডিসেম্বর সেই অমিত শাহের সভাতেই যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু! এরপর কি তাহলে…

এই জল্পনা যখন তুঙ্গে তখন গত ২৮ ডিসেম্বর দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে প্রয়াত প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির মূর্তি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এক মঞ্চে দেখা যায় সৌরভ ও অমিত শাহকে।

এমনিতে অনেকেই বলেন, সৌরভকে বিসিসিআই সভাপতি করার পিছনে অমিত শাহের বড় অবদান রয়েছে। সেই নির্বাচন ছিল গাব্বার শেষ টেস্টের থেকেও টানটান এবং ঐতিহাসিক। রাত সাড়ে নটায় গোটা দুনিয়া জেনে গিয়েছিল ব্রিজেশ পটেল হচ্ছেন বিসিসিআই সভাপতি। সৌরভ স্বয়ং তাঁকে এসএমএস পাঠিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু মধ্যরাতে ঘুরে যায় খেলা। শোনা যায়, অসমের এক মন্ত্রীকে ফোন করে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ভোটকে ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন শাহ। তবে সেসবই হচ্ছে কানাঘুষো।
সেই সৌরভকে নিয়ে যখন জল্পনা তুঙ্গে তখন সৌরভ বারবার নীরব থেকেছেন। জবাব এড়িয়ে গিয়েছেন। যা আরও উস্কে দিয়েছে জল্পনা।

ভোটের ঠিক আগে যখন বাংলায় দলবদলের হিড়িক চলছে, গেরুয়া শিবিরে যখন ভরা কোটাল, তখন শাহের এই গাঙ্গুলিবাড়ি সফর শেষ পর্যন্ত যদি হয় তাহলে মহারাজকে নিয়ে ফের আলোচনা শুরু হবে বাংলায়। তাহলে কি একুশের ভোটে বাংলায় বিজেপির মুখ…..!

অনেকে বলেন, সৌরভ হয়তো রাজনীতি আসবেন না শেষপর্যন্ত। কিন্তু বিজেপি হয়তো চাইবে ভোট পর্যন্ত এই জল্পনা জিইয়ে রাখতে। এই বার্তা ধারাবাহিক ভাবে দিতে যে সৌরভ তাঁদের সঙ্গেই রয়েছেন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More