অমিতাভের ‘সওদাগর’ দেখে শুরু করেছিলেন ব্যবসা, মহা ধুমধামে শাহেনশাহর জন্মদিন পালন করলেন কাটোয়ার ‘গুড়-কিং’ অশোক রায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কেক কেটে মহা ধুমধামে বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চনের ৭৭তম জন্মদিন পালন করলেন এক অন্ধ ভক্ত। আমন্ত্রিত ছিলেন কাটোয়া শহরের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। এই উপলক্ষ্যে এলাহি খানা-পিনারও আয়োজন করেছিলেন অমিতাভ ভক্ত অশোক কুমার রায় (৫৭)। প্রিয় নায়কের জন্মদিন পালনের সাথেই কাটোয়ায় প্রতিষ্ঠা করলেন অমিতাভ বচ্চন ফ্যান ক্লাবের।

এর পিছনে অবশ্য রয়েছে বলিউডি ছবির মতোই এক গল্প।

১৯৭৪ সালে ‘সওদাগর’ সিনেমা দেখে অমিতাভ বচ্চনের ভক্ত হয়ে যান অশোকবাবু। সিনেমায় অমিতাভকে গুড়ের ব্যবসাদারের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখে নিজেও গুড়ের ব্যবসা শুরু করেন। মাত্র ১২ বছর বয়সে কাটোয়া শহরের বারোয়ারী তলায় রাস্তার ধারে পাটালি গুড় বিক্রি দিয়ে শুরু। ধীরে ধীরে মস্ত দোকান করেছেন অশোকবাবু। অনেকেই তাঁকে কাটোয়ার ‘গুড়-কিং’ বলে ডাকেন। অবশ্য বয়স বাড়ার সাথে অশোক বাবুর বেড়ে গেছে অমিতাভ ভক্তি। দোকানের দেওয়াল জুড়ে টাঙানো প্রিয় নায়কের মস্ত ছবি। তাতে নায়কের জন্ম সাল, পরিবারের সদস্যের নাম থেকে শুরু করে পছন্দের সবকিছুর ব্যাপারে লেখা রয়েছে।

নিয়ম করে সকালে ব্যবসা শুরুর সময়ে ধুপ জ্বালিয়ে ভক্তি ভরে নায়কের কুশল কামনা করেন তিনি। দিনভর মিউজিক সিস্টেমে বেজে চলে অমিতাভ অভিনীত বিভিন্ন সিনেমার গান। এমনকি গুড় বিক্রির ডিব্বাতে শোভা পায় নায়কের কাঁধে পাটালি গুড়ের হাঁড়ির ছবি। সর্বদা হাসিখুশি অশোক বাবুর কাছে গুড় কিনলে উপরি পাওনা অমিতাভের জনপ্রিয় সেরা সেরা সব ডায়লগ।

আজ সন্ধ্যায় প্রিয় নায়কের জন্মদিন পালনে অশোকবাবুর দোকানে উপস্থিত ছিলেন তার ছোটবেলার কয়েকজন বন্ধুও। বাল্যবন্ধুরা শোনালেন একসাথে ১৯৮৩ সালে অমিতাভের কুলি সিনেমা দেখতে গিয়ে ভিড়ে অশোকবাবুর জুতো হারানোর কাহিনী। জুতো হারিয়ে বাবার বকুনির ভয়ে নাকি জুতো চেয়ে অমিতাভকে চিঠিও লিখেছিলেন অশোক কুমার রায়।

বর্তমানে শহরের বারোয়ারী তলাতেই বাড়ি করেছেন অশোকবাবু। সেখানেই স্ত্রী-ছেলে-মেয়ে নিয়ে থাকেন। প্রিয় নায়কের প্রতি ভক্তি দেখে ইন্টারনেট থেকে অমিতাভের নানা তথ্য বাবাকে জানায় ছেলে-মেয়ে। স্ত্রী কবিতা রায় স্বামীকে নানা ভাবে উৎসাহ যোগান। অশোকবাবু জানান স্ত্রীর উৎসাহেই প্রিয় নায়কের জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে একটি বই লিখেছেন। ছাপার পর তা অমিতাভকে উপহার দিতে চান তিনি। স্বপ্নের নায়কের সাথে দেখা করার অনুমতি চেয়ে চিঠিও লিখেছেন তিনি। আশায় রয়েছেন শিগগির হয়তো দেখা করার অনুমতি জানিয়ে চিঠি দেবেন স্বয়ং বলিউড শাহেনশাহ। আপাতত সেই আশাতেই দিন গুনছেন কাটোয়ার অশোক কুমার রায়।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

সুন্দরবনের  দুটি দ্বীপ, ভূমি হারানো মানুষ 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More