জোট জড়তা কাটিয়ে বিমান: ‘ওদিকে তৃণমূল-বিজেপি, এদিকে আমরা সবাই’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ২০১৬ সালের ভোটের সেদিন ফল ঘোষণা হচ্ছে। প্রাথমিক ট্রেন্ডে যখন বোঝা যাচ্ছিল তৃণমূল ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে, তখন আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে সিপিএম রাজ্য দফতরের নীচে দাঁড়িয়ে বিমান বসু বাম-কংগ্রেসের আসন সমঝোতা নিয়ে বলেছিলেন, ‘জোট না ঘোঁট হয়েছে!’

তারপর লোকসভা ভোট এল। উনিশের সেই ভোটে বাম-কংগ্রেস আসন সমঝোতার আলোচনার মধ্যেই সিপিএম একতরফা প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়েছিল। বিমান বসু বলেছিলেন, “টেবিলের তলায় মানির খেলা হয়েছে!”

কট্টরপন্থী হিসেবে পরিচিত সেই বিমান বসু জোটের ব্রিগেডে সব জড়তা যেন এক লহমায় কাটিয়ে ফেললেন। বললেন, “একদিকে তৃণমূল-বিজেপি, অন্যদিকে আমরা সবাই।”

বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান আরও বলেন, “এই ব্রিগেড ঐতিহাসিক এবং অভূতপূর্ব। অতীতের কোনও ব্রিগেডের সঙ্গে এর তুলনা হয় না। এর আগে কখনও বামপন্থী, জাতীয় কংগ্রেস, আইএসএফ-এর ব্রিগেড হয়নি।” তৃণমূলের উদ্দেশে টিপ্পনি কেটে বিমান বসু বলেন, “যাঁরা বলছিলেন দূরবীন দিয়ে বামপন্থী আর জাতীয় কংগ্রেসকে দেখতে হবে, তাঁদের বলছি, দূত পাঠিয়ে দেখে যান ব্রিগেড কী ইতিহাস তৈরি করেছে বাংলার মানুষ।”

এমনিতে বিমানবাবুর সততা, নিষ্ঠা নিয়ে বিরোধীরাও প্রশ্ন তোলেন না। কিন্তু তাঁর আলটপকা কথার জন্য সিপিএমকে বহুবার বিপাকে পড়তে হয়েছে। এদিন যখন মঞ্চে বিমান বসু সভাপতি হিসেবে বক্তৃতা করছিলেন, তখন দেখা যায় এক দৃষ্টিতে তাঁর দিকে তাকিয়ে রয়েছেন সীতারাম ইয়েচুরি, সূর্য মিশ্ররা। বক্তৃতা শেষ হওয়ার পর অনেক সিপিএম নেতাই বলছেন, বিমানদা আজ অন্য ফর্মে ছিলেন।

একুশের এই ব্রিগেড সব অর্থেই মাইলফলক বটে। ষোলোর ভোটে কংগ্রেস বলেছিল, জোট যখন হয়েছে তখন যৌথ সভা হোক। সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রর তাতে আপত্তি ছিল না। কিন্তু আপত্তি ছিল বিমান বসু, রবীন দেবদের। শেষে বাঁ হাতে ফুল দেওয়ার মতো সপ্তম দফার ভোটের আগে পার্ক সার্কাস ময়দানে যৌথ সভা করেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ও রাহুল গান্ধী। আর আজ একুশের যৌথ প্রচার শুরু হচ্ছে ব্রিগেড থেকে।

যদিও পর্যবেক্ষকদের অনেকের মতে, মাঝে পাঁচ বছর সময় নষ্ট করে ফেলেছে এই জোট। উপ নির্বাচন থেকে রাজ্যসভার নির্বাচনে নানান সুবর্ণ সুযোগ হাত ছাড়া করেছে। সেই শূন্যস্থানে ঢুকে পড়েছে বিজেপি। ফলে এই ব্রিগেড হয়তো প্রতীকী। কিন্তু এর আশু নির্বাচনী প্রভাব কতটা হবে তা নিয়ে সন্দেহ থাকলই।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More