সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন বলেই আলটপকা কথা, অমর্ত্যকে আক্রমণ দিলীপের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মোদী সরকারের অর্থনীতি থেকে স্বাস্থ্যনীতির নিন্দা করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। আর সেই বক্তব্যের গায়ে ‘আলটপকা’ মন্তব্যের তকমা সেঁটে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এক সংবাদপত্রে অমর্ত্য সেনের লেখা ‘দেশকে সম্পূর্ণ ভুল দিশা দেখাচ্ছেন হিন্দুত্ববাদীরা’ শীর্ষক একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে অমর্ত্য লিখেছেন, “সাম্প্রদায়িক স্তরে দেশটাকে আরও ভেঙেচুরে দিলেন এনডিএ নেতারা। সংখ্যালঘুদের, বিশেষ করে মুসলিমদের জীবনযাত্রা আরও দুর্বিষহ দশায় পৌঁছল।” সেই প্রসঙ্গে কলকাতা প্রেস ক্লাবে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, “সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন বলেই এমন আলটপকা মন্তব্য করেছেন উনি।”

এটাই প্রথমবার নয়। নোবেলজয়ী অমর্ত্য সম্পর্কে অতীতে আরও মারাত্মক মন্তব্য করেছিলেন দিলীপ। কলকাতার মৌলালি যুবকেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেছিলেন, “আমাদের একজন নোবেল প্রাইজ পেয়েছেন। বাঙালি।… তিনি কী করেছেন? বাংলার কেউ বোঝে না। দুনিয়ার কেউ বোঝে না। উনি নিজেও বোঝেন কিনা সন্দেহ আছে। কী দিয়েছেন দেশকে? কী করেছেন উনি?” এখানেই না থেমে দিলীপ বলেন, “এই ধরনের লোকেদের নিয়েই আমরা গর্ববোধ করি, মেরুদণ্ড নেই, চরিত্র নেই।” এঁদের কেনা যায়, বিক্রি করা যায়, চমকানো যায়, পায়ে পড়ে যায় বলেও মন্তব্য করেছেন দিলীপ।

সেবার অমর্ত্য সেনের অপরাধ ছিল তিনি মোদী সরকারের নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন। বলেছিলেন, এটা অর্থনীতির ক্ষেত্রে গুরুতর ভুল। এতে দেশের অর্থনীতির তো বটেই, বিশেষত গরিব মানুষের ক্ষতি হবে বেশি। তারই জবাবে, নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিকে এমন কুরুচিকর ভাষায় ব্যক্তিগত আক্রমণ শানান দিলীপ ঘোষ।

দিলীপের এমন বিষোদ্গারের পরে, অমর্ত্য সেন প্রত্যাশিত ভাবেই নিজের ভাষায় জবাব দেন। তিনি বলেন, “উনি যা ঠিক মনে করেছেন তা বলেছেন। ওনার বলার অধিকার আছে। আপত্তির কোনও কারণ নেই। সব কিছু নিয়ে আলোচনা হওয়া উচিত। যদি এ সব ওনার আলোচ্য বিষয় বলে মনে হয়, তবে অবশ্যই আলোচনা করা উচিত।”

এর পরে ২০১৯-এর ভোটে বিরোধীদের জোট হওয়া দরকার বলে সওয়াল করলেও আক্রমণ করেছিলেন দিলীপ ঘোষ। বলেছিলেন, “অমর্ত্য সেনের মতো মানুষ সমাজকে সবসময়ই ভুল পথে চালিত করে এসেছেন। যে ব্যক্তি সমাজকে ভুল পথে চালিত করে এসেছেন, তিনি যে আবার সেই চেষ্টা করবেন, তাতে আশ্বর্য হওয়ার কিছু নেই।”

ফের দিলীপের রোষে অমর্ত্য। এবারের নিবন্ধে অমর্ত্য সেন সোজাসুজিই মোদী সরকারের নিন্দা করেছেন বিভিন্ন ইস্যুতে। আর তা বলতে গিয়েই
বাক্‌স্বাধীনতা খর্ব করা থেকে, বিক্ষুব্ধদের দেশদ্রোহী বলার সমালোচনা করে বলেছেন, “ভারতকে সম্পূর্ণ ভুল একটি দিশায় এগোতে বাধ্য করলেন হিন্দুত্ব-পন্থী শাসকেরা।”

সরাসরি কোনও রাজনৈতিক মতবাদের হয়ে কথা না বললেও অমর্ত্য সেন পরিবর্তন চেয়েছেন কেন্দ্রে। তিনি মোদী সরকারের সমালোচনা করে লিখেছেন, “এনডিএ সরকারের কার্যক্রম দেখে মনে হয়, ভারতের এই মুহূর্তে যা যা প্রয়োজন, সে-সবের পাটই তুলে দেওয়া হয়েছে।” একই সঙ্গে বলেছেন, “ভারতে একটা গঠনমূলক পরিবর্তন প্রয়োজন – তা সে স্বাস্থ্যক্ষেত্রেই হোক বা সামগ্রিক ভাবে অর্থনৈতিক এবং সামাজিক নীতির ক্ষেত্রে।”

আরও পড়ুন

স্পেশ্যাল অবজার্ভার অজয় নায়েকের অপসারণ দাবি করে কমিশনকে চিঠি তৃণমূলের

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More