ভোট ঘোষণার পরের দিনই কমিশনে বিজেপি, গুচ্ছ অভিযোগ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিধানসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কমিশনের দ্বারস্থ হল বিজেপি। আদর্শ আচরণ বিধি কার্যকর হওয়ার পরেও রাজ্যে বিস্তর নিয়মলঙ্ঘন হচ্ছে বলে কমিশনে নালিশ ঠুকল গেরুয়া প্রতিনিধি দল।

এদিন স্বপন দাশগুপ্ত, অর্জুন সিং, শিশির বাজোরিয়া, ও সব্যসাচী দত্ত কমিশনে অভিযোগ করার পর সংবাদমাধ্যমে বলেন, “আদর্শ আচরণ বিধি লাগু হওয়ার পরও চারজন আইপিএস অফিসারকে মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তায় বহাল করা হয়েছে রাজ্যের তরফে। বিজেপির বক্তব্য, মুখ্যমন্ত্রীকে কেন্দ্রীয় সরকারের নিরাপত্তা দেয়া হোক। কারণ ভোটের সময় চারজন আইপিএসকে মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তায় ব্যস্ত রাখলে আখেরে ভোট প্রক্রিয়ায় ক্ষতিই হবে।

এছাড়াও বিভিন্ন পুরসভায় ব্যাক গেট দিয়ে ওয়ার্ক অর্ডার ইস্যু করা নিয়েও অভিযোগ জানিয়েছে বিজেপি। বিজেপির আরও অভিযোগ, একজন পুলিশ অফিসার অন্যান্য পুলিশকর্মীদের থেকে ভোটার এবং আধার কার্ডের নথি চাইছেন পোস্টাল ব্যালট একসঙ্গে তুলবেন বলে।
এতেও চক্রান্তের গন্ধ পাচ্ছে গেরুয়া শিবির। তাঁদের ধারণা এর ফলে ঘুরিয়ে ভোট লুঠ হতে পারে।

স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, বিভিন্ন জায়গায় অস্থায়ী কর্মীদের ভোটের ডিউটির ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। যা একেবারে নিয়ম বহির্ভূত। হাওড়ার একটি উদাহরণও কমিশনে পেশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজেপি।

পর্যবেক্ষকদের মতে, শুরু থেকেই কমিশনের উপর চাপ বাড়াতে শুরু করল বিজেপি। এর ফল তাত্‍ক্ষণিক ভাবে না উপলব্ধ হলেও পরে মালুম হবে বলে মত তাঁদের। রাজনৈতিক মহলের অনেকের বক্তব্য, ভোট প্রস্তুতির সময়েই ধারাবহিক অভিযোগের কী ফল হয় তা কাল দেখা গিয়েছে। শুধু মাত্র বাংলার জন্য দুজন পুলিশ জাঁদরেল পুলিশ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। এখন দেখার বাংলার ভোট সুষ্ঠু ভাবে করতে আর কী পদক্ষেপ করে কমিশন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More