কেন্দ্র খুব কম লোকের জন্য ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে, তবে কোনও গুজব যেন না ছড়ায়: মুখ্যমন্ত্রী

রফিকুল জামাদার

কথা ছিল জেলায় জেলায় যখন টিকাকরণ শুরু হবে তখন জেলা শাসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলবেন তিনি। শেষমেশ ভিডিও কনফারেন্সে থাকেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে নবান্ন সূত্রের খবর, মুখ্য সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফোন থেকে সেই কনফারেন্স চলাকালীন সংক্ষিপ্ত কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

কী বলেছেন তিনি?

নবান্নের একটি সূত্রের দাবি, মুখ্যমন্ত্রী জেলা শাসকদের বলেছেন, কেন্দ্র খুব কম সংখ্যায় টিকা পাঠিয়েছে। রাজ্যে যে জনসংখ্যা রয়েছে, তার তুলনায় তা নিতান্তই কম। সব মানুষ যাতে টিকা পান তার ব্যবস্থা রাজ্য সরকার আগামী দিনে করবে। তবে দেখতে হবে, টিকাকরণ নিয়ে যেন কোনও গুজব না ছড়ায়।

গুজব যাতে না ছড়ায় সে কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও দেশবাসীর উদ্দেশে এদিন সকালে বলেছেন। এমনিতে টিকা নেওয়া নিয়ে অনেক মানুষের এখনও অন্ধবিশ্বাস রয়েছে। পোলিওর টিকাকরণ করতে গিয়ে কয়েক দশক ধরে মানুষের মধ্যে সচেতনতা গড়ে তুলতে হয়েছিল। তবে কোভিডের টিকা নিয়ে যাতে মানুষের মধ্যে কোনও বিভ্রান্তি না হয় তা নিশ্চিত করতে শনিবার টিকা নিয়েছেন এইমসের প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া। সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্ণধার আদর পুনাওয়ালাও ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেছেন, বাংলায় স্বাস্থ্য কর্মী, চিকিৎসক, প্রশাসনিক কর্মী অফিসার, পুলিশ সহ ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কাররা কোভিড মোকাবিলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যে কাজ করেছেন তার যত প্রশংসা করা যায় কম মনে হবে। সরকারও তাদের সুরক্ষার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। রাজ্যে ৮ কোটিরও বেশি মানুষ বাস করেন। তাদের শরীর, স্বাস্থ্য ও সামাজিক নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে তাঁর সরকার নিরন্তর কাজ করে যাবে।

রাজ্যে আজ প্রায় ২১২টি কেন্দ্রে টিকাকরণ চলছে। মোট ৬ লাখ স্বাস্থ্যকর্মীকে টিকা দেওয়া হবে। তার মধ্যে আজ ৩২-৩৫ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী টিকার ডোজ পাবেন। প্রতি কেন্দ্রে ১০০ জন করে স্বাস্থ্যকর্মীর নাম নথিভুক্ত করা হয়েছে।  রাজ্যে টিকা দেওয়ার মোট ৪০৮৯টি কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ, এসএসকেএম, নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ, আরজিকর, বেলেঘাটা আইডি, স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিন, বিসি রায় শিশু হাসপাতাল এবং ৫টি প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রকে শহরের প্রতিষেধক কেন্দ্র হিসেবে বাছা হয়েছে। প্রয়োজনে টিকাকরণ শিবিরের সংখ্যা বাড়ানো বা কমানো হতে পারে। তাছাড়াও কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল যেমন, রবীন্দ্রনাথ টেগোর, অ্যাপোলো, ঢাকুরিয়া আমরি ও  টাটা মেডিক্যাল সেন্টারে টিকাকরণ হবে এদিন।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More