হিঙ্গলগঞ্জের ‘আক্রান্ত’ বিজেপি নেতার মৃত্যু এসএসকেএমে, তৃণমূলকে দায়ী করলেন দিলীপ

উত্তর ২৪ পরগনার হিঙ্গলগঞ্জের বিজেপি নেতা রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল সম্প্রতি রাজনৈতিক সংঘর্ষে গুরুতর জখম হয়েছিলেন।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুজোর মধ্যেই ফের রাজনৈতিক খুনের অভিযোগ বাংলায়।

উত্তর ২৪ পরগনার হিঙ্গলগঞ্জের বিজেপি নেতা রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল সম্প্রতি রাজনৈতিক সংঘর্ষে গুরুতর জখম হয়েছিলেন। তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল এসএসকেএম হাসপাতালে। সোমবার রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “বুথ এলাকায় পতাকা লাগিয়েছিলেন বিজেপি কর্মীরা।সেই পতাকা তৃণমূলের লোকজন খুলে ফেলে দেয়। এই ঘটনার প্রতিবাদ করতে গেলেই ব্যাপক মারধর করা হয় বিজেপি নেতাকে।” মেদিনীপুরের সাংসদের অভিযোগ, তৃণমূল খুন করেছে রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল কে। মঙ্গলবার তাঁর ময়নাতদন্ত হবে। হাসপাতালে গিয়েছেন শমীক ভট্টাচার্য সহ রাজ্য বিজেপির নেতারা।

যদিও তৃণমূলের তরফে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।শাসকদলের বক্তব্য, নিজেদের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বেই জখম হয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ।

বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথা মেঘালয় ও ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায় আবার দিলীপ ঘোষের কাছে দাবি জানিয়েছেন, গত ছমাসে বাংলায় কত জন বিজেপি নেতা কর্মীর অস্বাভী মৃত্যু হয়েছে তার একটা তালিকা প্রস্তুত করুক রাজ্য বিজেপি। এই সময়ে তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মত তথাগতবাবুর।

গতকালই শিলিগুড়িতে সভা করতে এসে বাংলার রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে সরব হয়েছিলেন বিজেপি সভাপতি জগৎ প্রকাশ নাড্ডা। উত্তরবঙ্গের ৫৪টি বিধানসভার নেতাদের নির্দেশ দিয়েছিলেন এই সমস্ত হিংসা ও আক্রমণের ঘটনা নিয়ে। আর গত রাতেই মৃত্যু হয়েছে হিঙ্গলগঞ্জের এই নেতার ।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More