‘নাড্ডার কনভয়ে কিছু হয়নি’, টুইট করে জানাল রাজ্য পুলিশ

 

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিজেপি সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডার কনভয়ে হামলার ঘটনা নিয়ে যখন জাতীয় রাজনীতি তোলপাড় তখন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ টুইট করে জানাল, কনভয়ে কিছু হয়নি।

এদিন টুইট করে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ বলেছে, “বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা সুরক্ষিত ভাবে নিজের গন্তব্যে পৌঁছে গিয়েছেন। তাঁর কনভয়ে কিছু হয়নি। দেবীপুর, ফলতা থানা এলাকা ও ডায়মন্ডহারবারের মধ্যে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা কিছু মানুষ হঠাৎ তাঁর কনভয়ের বেশ কিছুটা পিছনে থাকা কয়েকটি গাড়িতে ইঁট ছোড়ে। সবাই সুরক্ষিত রয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঠিক কী হয়েছিল তা জানতে তদন্ত করা হচ্ছে।”

ইতিমধ্যেই একাধিক ভিডিও সামনে এসেছে। বিজেপির তরফে সেসব ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েও দেওয়া হয়েছে। যাতে দেখা যাচ্ছে, নাড্ডার কনভয় যখন ডায়মন্ডহারবারের উদ্দেশে যাচ্ছে তখন বেশ কিছু জায়গায় রাস্তার দু’ধারে লোক জড়ো হয় বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন, তেড়ে আসছেন।

এদিন রাজ্য পুলিশের টুইট নিয়ে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু বলেন, “বাংলার পুলিশ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পোষা তোতা পাখি। ওই টুইট তৃণমূল ভবন থেকে হয়েছে। গোটা রাজ্যের মানুষ দেখতে পাচ্ছেন কী হয়েছে ডায়মন্ডহারবারে। ভিডিওতে এও স্পষ্ট কারা সেই হামলা চালিয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “পিসি-ভাইপো মিলে যাদের জন্য তোষণ করেছেন দশ বছর ধরে তারাই আজকে আমাদের নেতার কনভয়ে হামলা চালিয়েছে। কিন্তু এ ভাবে বিজেপিকে আটকানো মুশকিল। আজকেও যেমন সন্ত্রাস উপেক্ষা করে নাড্ডা লক্ষ্যে পৌঁছেছেন, একুশেও আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছব।”

বিজেপির দাবি, নাড্ডার কনভয়ে আধলা ইট, বোতল ছোড়া হয়েছে। অন্তত ১৫টি গাড়ি চুরমার করে দেওয়া হয়েছে। বিজেপি নেতা অনুপম হাজরার সঙ্গে থাকা এক নেতা রক্তাক্তও হয়েছেন।

যদিও শাসকদলের তরফে প্রবীণ সাংসদ সৌগত রায় বলেছেন, “অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রে খোঁচাতে যাওয়ার কী দরকার ছিল। তা ছাড়া নাড্ডা একটি দলের সভাপতি। তিনি তো আর প্রধানমন্ত্রী বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নন। তাই তাঁর পুরো যাত্রাপথে পুলিশ দেওয়া সম্ভব নয়।”

গতকাল মুখ্যমন্ত্রীর কেন্দ্রের গৃহ সম্পর্ক অভিযানে গিয়েও নাড্ডাকে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছিল। তার কনভয়ে হামলার চেষ্টা হয় বলে অভিযোগ করে বিজেপি। এ নিয়ে রাজ্য বিজেপি সভাপতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চিঠিও লেখেন। সূত্রের খবর অমিত শাহও তাঁর দফতরের আধিকারিকদের নির্দেশ দেন নবান্নের কাছে কৈফিয়ত চাইতে। ঠিক তারপরেই ডায়মন্ডহারবারের ঘটনা ঘটে যায়।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More