পূর্ব মেদিনীপুরে দুই স্বাস্থ্য অধিকর্তাকে বদল করুন, মুখ্যসচিবকে চিঠি দিব্যেন্দুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিড সংক্রান্ত পরিস্থিতিতে এর আগে তাঁর উদ্বেগের কথা রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে জানিয়েছিলেন তমলুকের তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। শনিবার দিব্যেন্দু সরাসরি চিঠি লিখলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যে চিঠিতে মূলত পূর্ব মেদিনীপুর ও নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য দফতরের দুই অধিকর্তাকে বদলের দাবি জানিয়েছেন এই তৃণমূল সাংসদ।

আলাপনবাবুকে লেখা চিঠিতে দিব্যেন্দু উল্লেখ করেছেন, এটা দেখে তিনি ব্যথিত যে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার স্বাস্থ্য ব্যবস্থার যা হাল তাতে দ্রুত পরিস্থিতি দ্রুত নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে তিনি স্বাস্থ্য আধিকারিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন।

তমলুকের সাংসদ লিখেছেন, “জেলা হাসপাতালগুলিতে গয়ংগচ্ছ মনোভাব দেখা যাচ্ছে। একইসঙ্গে কাজের মধ্যে কোনও শৃঙ্খলা নেই। পূর্ব মেদিনীপুর এবং নন্দীগ্রামের সিএমওএইচ-ও উদাসীন।” তাঁদের দ্রুত বদলের দাবি জানিয়েছেন দিব্যেন্দু।

গোটা রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলির মতো পূর্ব মেদিনীপুর জেলাতেও সংক্রমণ ক্রমশ বাড়ছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য ভবন যে বুলেটিন প্রকাশ করেছিল তাতে দেখা যাচ্ছে এই জেলায় এক দিনে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫০৬ জন। এখনও পর্যন্ত ২৭ হাজারের বেশি কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন এই জেলায়। মৃত্যু হয়েছে ২৯১ জনের।
প্রসঙ্গত, কোভিডের প্রথম পর্বে একটা সময়ে পূর্ব মেদিনীপুরের সংক্রমণ চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছিল নবান্নের কপালে। বিভিন্ন ব্লকে সংক্রমণ ছড়িয়েছিল ব্যাপক হারে। পরে তা নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ অনেক বেশি সাংঘাতিক। দ্রুত সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। হতে পারে সেসব কথা মাথায় রেখেই মুখ্য সচিবকে সতর্ক করতে চেয়েছেন দিব্যেন্দু। এখন দেখার, শাসকদলের সঙ্গে দূরত্ব রাখা এই সাংসদের চিঠির ভিত্তিতে নবান্ন জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয় কি না।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More