মালদায় জোড়া বিস্ফোরণের ঘটনায় এনআইএ-এর হাতে গ্রেফতার ১

কয়েক মাস আগে মালদার একটি আমবাগানে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছিল। গত জুলাই মাসে ইংরেজবাজার শহরের কৃষ্ণপল্লী এলাকায় টোটোতে বিস্ফোরণের ঘটনায় হইহই পড়ে গিয়েছিল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মালদায় দুটি পৃথক বিস্ফোরণের ঘটনায় জাতীয় তদন্ত এজেন্সি গ্রেফতার করল এক জনকে। এনআইএ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম সিদ্ধার্থ মণ্ডল। তাকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন গোয়েন্দারা।

কয়েক মাস আগে মালদার একটি আমবাগানে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছিল। গত জুলাই মাসে ইংরেজবাজার শহরের কৃষ্ণপল্লী এলাকায় টোটোতে বিস্ফোরণের ঘটনায় হইহই পড়ে গিয়েছিল। টোটো কাণ্ডের তদন্তে আগেই নেমেছিল এনআইএ। এই ঘটনায় একজনকে গ্রেফতারও করেছিল কেন্দ্রীয় এজেন্সি। এবার গ্রেফতার করা হল আরও এক জনকে।

জানা গিয়েছে ধৃতের বাড়ি মালদার মানিকচক থানা এলাকায়। বাড়ি থেকেই সিদ্ধার্থকে গ্রেফতার করে এনআইয়ের বিশেষ দল।

টোটো বিস্ফোরণের ঘটনায় ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছিল চালকের দেহ। বিস্ফোরণের তীব্রতা ছিল এতটাই যে টোটো চালকের দেহের বিভিন্ন অংশ বিভিন্ন জায়গায় ছিটকে পড়ে।

ওই সময়ে বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু অভিযোগ করেছিলেন, নাশকতার জন্যই বিস্ফোরক নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। যদিও মালদার পুলিশসুপার আলোক রাজোরিয়ার বক্তব্য ছিল, প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে টোটোর ব্যাটারি বিস্ফোরণ হয়েছে। তারপর ঘটনাস্থলে পৌঁছে নমুনা সংগ্রহ করে ফরেনসিক দল এবং তদন্তে নামে এনআইএ।

মুর্শিদাবাদ থেকে আলকায়দা যোগে ধৃতদের থেকে এনআইএ জানতে পেরেছিল, তাদের সঙ্গে মালদার বেশ কয়েকজনের যোগাযোগ রয়েছে। একটি হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের চ্যাট থেকে জানা যায় ২২ জনের মধ্যে ১৩ জন মালদার, ন’জন মুর্শিদাবাদের। তবে এই গ্রেফতারি সেই সূত্রেই কিনা তা অবশ্য স্পষ্ট করেনিন জাতীয় তদন্ত এজেন্সি।

 

বিস্তারিত আসছে….

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More