সিপিএমকে চিঠি কংগ্রেসের, ‘আমাদের কেউ শিথিলতা দেখালে জানান, বরদাস্ত করব না’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ জেলা। একুশের বিধানসভা ভোটে এই জেলায় অধিকাংশ আসনেই কংগ্রেস প্রার্থী দিয়েছে। কিছু আসনে বামেরাও লড়ছে। কিন্তু জোট মজবুত করতে মুর্শিদাবাদ জেলা সিপিএমকে সরাসরি চিঠি লিখল জেলা কংগ্রেস।

মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেসের মুখপাত্র জয়ন্ত সাউ সিপিএম জেলা সম্পাদককে সম্প্রতি একটি চিঠিতে পষ্টাপষ্টি বলেছেন, সমস্ত কংগ্রেস কর্মীকে ময়দানে নামতে বলা হয়েছে। জোটের ক্ষেত্রে কোনও শিথিলতা বরদাস্ত করা হবে না। কংগ্রেসের তরফে সিপিএমকে আরও বলা হয়েছে, যদি কোনও প্রতিবন্ধকতা তাঁদের দিক থেকে দেখা যায়, অর্থাৎ কোথাও যদি এমন হয় যে কংগ্রেস কর্মীরা বাম প্রার্থীর হয়ে প্রচারে নামছেন না, তাহলে যেন জেলা কংগ্রেসকে জানানো হয়। তারা ব্যবস্থা নেবেন।

অনেকের মতে, এই চিঠি এক দিকে যেমন জোট বোঝাপড়াকে মজবুত করবে তেমন উল্টোদিকে সিপিএমও দলীয় স্তরে তৎপরতা শুরু করবে। তাঁদের যে কর্মীরা এখনও কংগ্রেসের প্রতি নাক উঁচু ভাব দেখিয়ে ঘরে বসে রয়েছেন তাঁরাও যাতে রাস্তায় নামেন তার উদ্যোগ নেবেন নৃপেন চৌধুরী, জামির মোল্লারা। কংগ্রেসের এই চিঠি মহোল্লাসে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন ডোমকলের তরুণ সিপিএম প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান।

২০১৬ সালের ভোটে বাম-কংগ্রেস জোট হয়েছিল। কিন্তু তা ছিল ছাড়াছাড়া। সিঙ্গুরে অধীর চৌধুরী যখন মঞ্চে বক্তৃতা করছেন তখন দূরে চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছেন সীতারাম ইয়েচুরি। এক ফ্রেমে থাকবেন না। আবার দেখা গিয়েছিল দক্ষিণ ২৪ পরগনায় একসঙ্গে মিটিং করছেন সনিয়া গান্ধী-সুজন চক্রবর্তী। একেবারে শেষলগ্নে গিয়ে পার্কসার্কাস ময়দানে যৌথ সভায় হাজির ছিলেন রাহুল গান্ধী এবং বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।

অনেকে বলেন, জোট ভেঙে যাওয়ার পিছনে ছিল সিপিএমই। অধীর চৌধুরীরা চেয়েছিলেন একসঙ্গে চলতে। কিন্তু বঙ্গ সিপিএমের একটা অংশ তা হতে দেয়নি। কিন্তু গত বছর জুলাই থেকেই জড়তা কাটিয়ে ফেলে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। ১ জুলাই বিধান রায়ের স্মরণ অনুষ্ঠানে প্রদেশ কংগ্রেস দফতরে চলে যান বাম নেতারা। অধীরবাবু, আবদুল মান্নান, প্রদীপ ভট্টাচার্যরা একাধিক বৈঠক ও সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন সিপিএম রাজ্য দফতরে। এবার মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেস এই চিঠি লিখল জেলা সিপিএমকে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More