বিজেপি বাইরে থেকে লোক ঢোকাচ্ছে, তারা রোগ ছড়িয়ে পালাচ্ছে: জলপাইগুড়িতে মমতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে কোভিড সংক্রমণ। সারা দেশের মতো বাংলাতেও কোভিড আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা রেকর্ড তৈরি করছে রোজ। এ নিয়ে বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাঠগড়ায় তুলতে চাইলেন বিজেপিকে। এদিন জলপাইগুড়ির জনসভা থেকে মমতা বলেন, “এই বিজেপি বাইরে থেকে হাজার হাজার লোক ঢোকাচ্ছে। তারা রোগ ছড়িয়ে দিয়ে পালাচ্ছে”।

এদিন দিদি আরও বলেন, “আমি কতবার বললাম, আমায় ইঞ্জেকশনগুলো দিন। আমি পয়সা দিয়ে কিনে নিয়ে রাজ্যের সব মানুষকে টিকা দেব। আমায় দিল না। এদের জন্যই করোনা আবার বাড়ছে। এরা কিচ্ছু কন্ট্রোল করতে পারে না।”
কোভিড সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে সারা দেশেই লন্ডভণ্ড অবস্থা। আজকেই কেন্দ্রীয় সরকার সিবিএসই-র দশম শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল করে দিয়েছে। পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষাও। রাজ্য সরকারও ইতিমধ্যে জেলাগুলিকে বলেছে, হাসপাতালে কোভিড বেড দ্রুততার সঙ্গে বাড়াতে হবে। পরিস্থিতি যখন এমনই তখন বাংলায় করোনা সংক্রমণের জন্য বিজেপিকে দায়ে করলেন মমতা।

বিজেপির বিরুদ্ধে বহিরাগত ঢোকানোর অভিযোগ তৃণমূলের নতুন নয়। প্রথম দফার নির্বাচনের আগে থেকে এ নিয়ে জনসভাগুলিতে সরব দিদি। তাঁর কথায়, বাংলায় ভোট করাতে বিজেপি বিহার-উত্তরপ্রদেশ থেকে গুণ্ডাদের ঢোকাচ্ছে। মাথায় গেরুয়া ফেট্টি বেঁধে, মুখে পান ভার চিবোতে চিবোতে তারা গুণ্ডামি করছে।

পঞ্চম দফার নির্বাচনের আজই শেষ প্রচার। ৭২ ঘণ্টা আগে প্রচার বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। তা ছাড়া সোমবার রাত আটটা থেকে মঙ্গলবার রাত আটটা পর্যন্ত মমতার প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার সেই সময়সীমা শেষ হওয়ার পর বারাসত ও বিধাননগরে সভা করেন দিদি। এদিন নির্বাচন কমিশনের নাম না করে মমতা বলেন, “আপনারা তো জানেন আমার ৯৬ ঘণ্টা লস হয়ে গেছে। এদিকে ৭২ ঘণ্টা আগে প্রচার বন্ধ ও দিকে ২৪ ঘণ্টা আমাকে করতে দেওয়া হয়নি। তাই এই সময়ের মধ্যেই আমাকে এই প্লাস্টার করা পা নিয়ে সবটা ম্যানেজ করতে হচ্ছে।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More