বামেরা চিন্তায় পড়ে গেছেন! ‘ক্লাস এইটের ইতিহাস বইটার কী হবে?’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঙ্গলবার সকাল থেকে বেশ চিন্তিত বাংলার বাম জনতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝরে পড়ছে উদ্বেগ। তাঁদের টেনশনের একটাই কারণ, ক্লাস এইটের ইতিহাস বইটার এবার কী হবে?

ব্যাপার কী?

মূলত সিঙ্গুর নিয়ে একটি পোস্টার হু হু করে ছড়াতে শুরু করেছে ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপে। তার মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে এটাই, ক্লাস এইটের ইতিহাস বই নাকি ঘোর সঙ্কটে। ওই পোস্টারে লেখা হয়েছে—

বামেদের সেই পোস্টার

“ক্লাস এইটের ইতিহাস বইতে লেখা রয়েছে সিঙ্গুর জমি আন্দোলনের নেতা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। সেই রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য বিজেপিতে যোগ দিয়ে বললেন সিঙ্গুর থেকে শিল্প তাড়িয়েছেন মমতা। তিনি শিল্প ফিরিয়ে আনবেন। রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য বিজেপির প্রার্থী হলেন। সেই বিজেপি কাল মিছিল করে বলল সিঙ্গুর থেকে শিল্প তাড়ানোর কারিগর রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের কালো হাত ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও।”

এর পরেই গভীর উদ্বেগের সঙ্গে বামেরা এই প্রশ্ন তুলেছেন, “ক্লাস এইটের ইতিহাস বইটার এবার কী হবে?”
সন্দেহ নেই এটি একটি আদ্যপান্ত শ্লেষে ভরা, ব্যাঙ্গাত্মক পোস্টার। সিঙ্গুরে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী করেছেন বেচারাম মান্নাকে। বেচারাম ছিলেন হরিপালের বিধায়ক। তাঁকে সিঙ্গুরে তুলে এনে তাঁর স্ত্রী করবী মান্নাকে হরিপালে টিকিট দেওয়া হয়েছে। আর মাস্টারমশাই বিজেপির প্রার্থী। অন্যদিকে সিপিএম এবার সিঙ্গুরে প্রার্থী করেছে এসএফআই রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্যকে।

গত লোকসভায় সিঙ্গুরে হাজার দশেক ভোটের লিড ছিল বিজেপির। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্থানের অন্যতম মাটিতেই ধাক্কা খেয়েছিল তৃণমূল। কিন্তু বিজেপির প্রার্থী ঘোষণার পর বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত সে ভাবে জমিয়ে প্রচারই শুরু করতে পারেননি মাস্টারমশাই। যদিও বিজেপির নেতারা বলছেন, এই রকম হয়েই থাকে। ওটা কোনও ব্যাপার নয়। দু’একদিনের মধ্যেই প্রচারে ঝড় তুলবে বিজেপি। ওদিকে গাঁ গাঁ চষে বেড়াচ্ছেন সিপিএম ও তৃণমূল প্রার্থী। তার মধ্যেই তৃণমূল আর বিজেপিকে একসঙ্গে খোঁচা বামেদের।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More